× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার

টেস্টের লজ্জা টি-টোয়েন্টিতে ভোলার লড়াই

খেলা

ইশতিয়াক পারভেজ | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৪২

আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে ২২৪ রানে হার দেখেছে বাংলাদেশ। যদিও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নবাগত দলটির বিপক্ষ হারকে লজ্জা নয়, কষ্ট হিসেবেই দেখছেন। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজেই ঘুরে দাঁড়াবে দল। টেস্টে হারের সেই কষ্ট ভুলে এগিয়ে যেতে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয়কে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সিরিজের প্রথম ম্যাচে টাইগাররা মুখোমুখি হবে জিম্বাবুয়ের। এ ম্যাচ নিয়ে সাকিব বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টি ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচটি জেতা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তাহলে হয়তো সবকিছু কন্ট্রোলে আসার একটি সম্ভাবনা তৈরি হবে। সেজন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। হাতে খুব বেশি একটা সময় নেই। খুব তাড়াতাড়ি টার্ন অ্যারাউন্ড করতে হবে কারণ বেশিরভাগ খেলোয়াড় এখানে যারা আছে তারা টি-টোয়েন্টিতে খেলবে। তাই সবার মানসিকতা পরিবর্তন করে আবার টি-টোয়েন্টি ফরম্যাশনে আনতে হবে এবং ডিসেন্ট পারফর্ম করে ফলাফলও আনতে হবে। আমাদের জন্য এটি কঠিন। কিন্তু এই ফলাফলটিও আমাদের জন্য খুবই জরুরী যে আমরা যেন ভালো একটি শুরু করতে পারি টুর্নামেন্টটিতে।’ অন্যদিকে বাংলাদেশের মাটিতে প্রস্তুতি ম্যাচে জয় দিয়ে শুরু করেছে চিরচেনা প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে। অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ম্যাচের আগে বেশ আত্মবিশ্বাসী। ছোট ফরম্যাটে সব দলই সমান বলেই মনে করেন তিনি।
গতকাল সকালেই জিম্বাবুয়ে দল মিরপুর শেরে বাংলা মাঠে আসে অনুশীলনে। টেস্ট, ওয়ানড ও টি-টোয়েন্টি তিন ফরমেটেই এই কন্ডিশনে খেলে দারুণ অভ্যস্ত জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা। অন্যদিকে বাংলাদেশ দল এখনো টিটোয়েন্টি দারুণ ভাবে পিছিয়ে। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৭ এ থাকলেও এই ফরমেটে বাংলাদেশের অবস্থান আফগানিস্তানের তিন ধাপ নিচে ১০-এ। আর র‌্যাঙ্কিংয়ে জিম্বাবুয়ের অবস্থান ১৪ নাম্বারে। এরপরও এই ফরম্যাটে ছোট বড় দল হিসেব করে খেলা খুবই কঠিন। এখন পর্যন্ত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ খেলেছে ১৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। সেখানে জয় ধরা দিয়েছে ৫টি। এর মধ্যে  দেশের মাটিতেই ৭ ম্যাচে এসেছে জয়।
সবশেষ ২০১৬ তে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চার ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ দল। সেখানে প্রথম দুটি জিতলেও  শেষ দুই ম্যাচে মিলেছে টানা হার। এর পর দুই দলের আর দেখা হয়নি। এর মধ্যে তিন বছর কেটে গেলেও বাংলাদেশ এই ফরমেটে নিজেদের বদলাতে পারেনি। এখন পর্যন্ত ৮৫ ম্যাচ খেলে মাত্র ২৬ জয়ের দেখা পেয়েছে। সবশেষ জয়টি গেল বছর ঢাকায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে। সেই সিরিজে অবশ্য প্রথম ম্যাচ জিতে পরেরটাতেই হেরে যায় টাইগাররা।
আজ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষ ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচে কেমন হবে বাংলাদেশ দল! আগে অবশ্য বলা হয়েছিল বড় পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামবে টাইগাররা। কিন্তু  শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। আফগানদের বিপক্ষে টেস্টে হারের পর আর ঝুঁকি নিচ্ছে না বাংলাদেশ। তাই দল ঘোষণায় একমাত্র চমক তরুণ  পেসার ইয়াসিন আরাফাত মিশু। তবে আজ প্রথম একাদশে এই তরুণকে খেলানো হবে কিনা তা নিশ্চিত নয়। প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ে বলেই স্পিনারের সংখ্যা বেশি হবে তাই ধারণা করা হচ্ছে। তাই সাকিব আল হাসানের সঙ্গে স্পিন আক্রমণে দেখা যেতে পারে তাইজুল ইসলামকে। এছাড়াও পেস আক্রমণে মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গী হবেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। তবে তিন পেসার নিয়ে খেললে বিবেচনায় থাকতে পারেন ২০ বছর বয়সী মিশু। আর তিন স্পিনার  খেলালে সম্ভাবনা থাকবে আফিফ হোসেনের। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ৪ ওভারের স্পেলে ১৯ রানে তিন উইকেট নেন এ তরুণ অফস্পিনার। তবে ব্যাটিংটাই বেশি গুরুত্ব দেয়া হবে। ওপেনার তামিম ইকবাল বিশ্রামে। তাই  সৌম্য সরকার আর লিটন দাসকে দেখা যাবে ওপেনিংয়ে। এরপর অধিনায়ক সাকিব, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান অথবা মোসাদ্দেক হোসেন।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর