× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার

জাতীয় দিবসে স্বাধীনতার দাবিতে ফের উত্তাল কাতালানরা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:১৭

স্পেনের স্বায়ত্ত্বশাসিত অঞ্চল কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার দাবিতে ফের রাস্তায় নেমেছে কাতালানরা। কাতালোনিয়ার জাতীয় দিবসে বুধবার অঞ্চলটিকে স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণার দাবিতে রাজধানী বার্সেলোনায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে প্রায় ছয় লাখ কাতালান। গত আট বছর ধরে প্রত্যেক জাতীয় দিবসে এই দাবি পূরণের বিক্ষোভ করে আসছে তারা। এর মধ্যে ২০১৭ সালের আন্দোলন সবচেয়ে দীর্ঘ মেয়াদী হয়েছিল। নানা নাটকীয়তার মধ্য দিয়ে অবশ্য তার নিস্ফল অবসান ঘটে। গ্রেপ্তার হয় আন্দোলনের নেতৃত্ব দেয়া বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতারা। এ খবর দিয়েছে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস।
খবরে বলা হয়, গত বছরের আন্দোলনের তুলনায় এবারের আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা অপেক্ষাকৃত কম। ধারণা করা হচ্ছে, আন্দোলনকারীরা বিভিন্ন মতাদর্শে বিভক্ত হয়ে রয়েছে।
তবুও ছয় লাখ মানুষ বুধবারের বিক্ষোভে অংশ নেয়। তারা তাদের স্বাধীনতাপন্থি নেতাদের মুক্তির দাবি জানায়।
আনা রিবা নামের ২৬ বছর বয়সী এক বিক্ষোভকারী জানান, আমরা সবাই এখনো স্বাধীন কাতালান প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। কিন্তু তা কিভাবে অর্জন করব ও সেটা কী ধরণের স্বাধীনতা হবে সে বিষয়ে আমরা একমত নই। আমাদের সেরা রাজনীতিবিদরা কারাবন্দি থাকায় ও ¯প্যানিশ সরকার তাদের চুপ রাখায় এমনটা হচ্ছে।
কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাপন্থি নেতারা আন্দোলনকে কিভাবে পুনরুজ্জীবিত করা যায় সে বিষয়ে বিভক্ত। ২০১৭ সালে নাটকীয় এক স্থিরতায় পৌঁছে আন্দোলনটি। স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকার কাতালোনিয়ার ওপর কেন্দ্রীয় শাসন জারি করে। সাম্প্রতিক সপ্তাহে বিভিন্ন খাতের স্বাধীনতাপন্থি নেতাদের মধ্যে আন্দোলন নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। কাতালোনিয়ার সাবেক নেতা কার্লোস পুজেমন ছিলেন ২০১৭ সালের আন্দোলনের প্রধান নেতাদের একজন। বর্তমানে গ্রেপ্তার এড়াতে ব্রাসেলসে অবস্থান করছেন। তিনি আঞ্চলিক নির্বাচন আয়োজনের বিরুদ্ধে। এছাড়া সাবেক উপ নেতা অরিয়ল ইয়নকুয়েরাস বর্তমানে কারাবাসে রয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর