× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে: মমতা

দেশ বিদেশ

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৯:০২

 ফের ভারতের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ঝেড়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি চলছে। গতকাল আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে টুইটারে মমতা লিখেছেন, আজ আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবসে আসুন আমরা সকলে আমাদের দেশের সাংবিধানিক পরিকাঠামোকে অক্ষুণ্ন রাখার অঙ্গীকার নেই। এই সুপার ইমার্জেন্সির জমানায় মানুষের সাংবিধানিক অধিকার ও স্বাধীনতা রক্ষার জন্য যা যা করতে হবে আমরা তা অবশ্যই করবো। এনআরসি, কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থাকে দিয়ে তল্লাশি অভিযান, পুজো কমিটিকে আয়কর দপ্তরের নোটিশসহ কেন্দ্রের বিভিন্ন কাজের বিরোধিতা করেছেন মমতা। শনিবারও জাতীয় হিন্দি দিবস উপলক্ষে হিন্দিকে জাতীয় ভাষা করার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বক্তব্যের জবাবে মমতা লিখেছেন, আঞ্চলিক ভাষাকে সম্মান দেয়া উচিত। মাতৃভাষাকে কখনওই ভোলা উচিত নয়। শনিবার ‘হিন্দি দিবস’ উপলক্ষে অমিত শাহ বলেছেন, কোনো ভাষা যদি দেশকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে পারে, তবে তা হলো হিন্দি। কারণ, ওই ভাষাতেই দেশের বহু মানুষ কথা বলেন।
তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিরোধী রাজনীতিবিদরা। বিরোধীরা জানিয়েছেন, জনগণনার সমীক্ষা থেকেই দেখা গেছে, ভারতের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৬ জনেরই মাতৃভাষা হিন্দি নয়। দেশের মাত্র ৪৩.৬৩ শতাংশ মানুষ হিন্দিতে কথা বলেন। এর পরেই রয়েছে বাংলা। মোট ৮.০৩ শতাংশ মানুষ বাংলায় কথা বলেন। এর পরে রয়েছে অন্যান্য ভাষা।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
shiblik
১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ১১:২৪

"কোনো ভাষা যদি দেশকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে পারে, তবে তা হলো ....." জিন্নাহ + অমিত শাহ। তবে ইতিহাস বলে মানুষের ভাষা, ধর্ম, ঐতিহ্য ... নিয়ে টানাটানি করলেই ঝামেলা অনিবার্য।

অন্যান্য খবর