× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

বান্দরবানে কৃষকের ঋণের টাকা আত্মসাতের মামলায় যুবলীগ সভাপতি আটক

বাংলারজমিন

বান্দরবান প্রতিনিধি | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৩৯

বান্দরবান অগ্রণী ব্যাংক লি. কর্মকর্তার যোগসাজশে কৃষকদের জন্য ঋণের বরাদ্দ প্রায় ৫০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় বান্দরবান সদর উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ক্যচিং অং মার্মাকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমক কমিশন (দুদক)। গতকাল সকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে বান্দরবান সদর থানা পুলিশের সহায়তায় আদালতে পাঠানো হয়েছে। জানা যায়, অগ্রণী ব্যাংক লি. বান্দরবান বাজার শাখা থেকে আদা ও হলুদ চাষিদের বিতরণ করার নামে ক্যচিং অং মার্মাসহ অপরাপর আসামিরা ২৭ লাখ ৭০ হাজার (সুদসহ ৫০ লাখ ২২ হাজার ৫০৫) টাকা প্রতারণা জাল জালিয়াতির মাধ্যমে ও ভুয়া রেকর্ডপত্র তৈরির মাধ্যমে আত্মসাৎ করে। এ ঘটনা তদন্ত শেষে গত ২১শে জুলাই ২০১৯ দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর উপ-সহকারী পরিচালক বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় সাবেক ব্যাংকের ম্যানেজারসহ পাঁচজনকে আসামি করা হয়।
মামলার বাদী দুদকের চট্টগ্রাম-২ উপ-সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ জাফর সাদেক শিবলী বলেন, আদা-হলুদ চাষের জন্য ২০১১-১২ এবং ২০১২-১৩ অর্থবছরে বান্দরবান জেলায় ৩০টি ঋণের সুপারিশ করেন। স্থানীয় দালাল ক্যচি অং মার্মা প্রায় সবকটি ঋণের বিপরীতে গ্রাহকদের ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করে নিজেই আবেদন ফরম পূরণ, স্বাক্ষর প্রদানসহ যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জমা দেন।
৩০টি ঋণের বিপরীতে অগ্রণী ব্যাংক বান্দরবান শাখা হতে ২৮ লাখ ৯০ হাজার টাকা পাহাড়িদের আদা ও হলুদ চাষিদের মাঝে বিতরণ করা হবে দেখিয়ে উত্তোলন করা হয়। কিন্তু পরে কয়েকজন চাষিকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা প্রদান করে বাকি ২৭ লাখ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। যা সুদসহ মোট ৫০ লাখ ২২ হাজার ৫০৫ টাকা হয়েছে। মামলায় অপরাপর আসামিরা হলো- সাবেক ম্যানেজার নিবারণ চন্দ্র তংচঙ্গ্যা, জ্ঞান চাকমা, জৌতিষ কুমার খীসা, হীরেন্দ্র লাল চাকমা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর