× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার
সৌদি আরবে ড্রোন হামলা

বিশ্ববাজারে তেলের দাম বাড়ছে রেকর্ড পরিমাণে

শেষের পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:০৮

সৌদি আরবের আরামকো’র দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলার পর ১৯৯১ সালের পারস্য উপসাগরীয় যুদ্ধের পর প্রথমবারের মতো 
সোমবার জ্বালানি তেলের দাম সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিন বিশ্ববাজারে হু হু করে বেড়ে যাচ্ছিল তেলের দাম। সৌদি আরব বিশ্ববাজারে শতকরা ৫ ভাগ তেল সরবরাহ কমিয়ে দেয়ার পর সৃষ্টি হয় এই সংকট। এর ফলে অশোধিত বেন্টের দাম বৃদ্ধি পায় শতকরা ১৯.৫ ভাগ। বৃদ্ধি পেয়ে প্রতি ব্যারেল তেলের দাম দাঁড়ায় ৭১.৯৫ ডলার। ১৯৯১ সালের ১৪ই জানুয়ারির পর একদিনে এটাই এই তেলের সর্বোচ্চ দাম। এ ছাড়া ব্যারেল প্রতি ফ্রন্ট-মান্থ কন্ট্রাক্টের দাম ছিল ৬৬.২৮ ডলার। তা বৃদ্ধি পেয়েছে ৬.০৬ ডলার।
ইউএস ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই)-এর দাম শতকরা ১৫.৫০ ভাগ বৃদ্ধি পেয়ে প্রতি ব্যারেলের দাম দাঁড়িয়েছে ৬৩.৩৪ ডলার। ১৯৯৮ সালের ২২শে জুনের পর এটাই এই তেলের সর্বোচ্চ দাম। এই তেলের ফ্রন্ট-মান্ট কন্ট্রাক প্রতি ব্যারেল ছিল ৫৯.৭৭ ডলার। তা বেড়েছে ৪.৯২ ডলার।
উল্লেখ্য, বিশ্বে তেল রপ্তানিতে সবচেয়ে বড় দেশ হলো সৌদি আরব। গত শনিবার এ দেশটির রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সৌদি আরামাকো’র এবং বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলক্ষেত্র আবকাইক এবং খুরাইসে ড্রোন হামলা চালায় ইয়েমেনের বিদ্রোহী হুতিরা। এতে ওই দুটি তেলক্ষেত্রেই আগুন ধরে যায়। ভয়াবহ ক্ষতি হয় এর। ফলে ওই দুটি তেলক্ষেত্র থেকে তেল উত্তোলনের মতো অবস্থা আপাতত নেই। ওই দুটি তেলক্ষেত্র চালু করতে কয়েক দিন নয়, বেশ কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র। এ জন্য সৌদি আরব দিনে ৫৭ লাখ ব্যারেল তেল উত্তোলন কমিয়ে দেয়। মোট যে পরিমাণ তেল সৌদি আরব রপ্তানি করে এই পরিমাণ তার অর্ধেক। তা সত্ত্বেও এই সপ্তাহে তেল সরবরাহ স্বাভাবিক রাখবে সৌদি আরব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর