× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার

‘আরো দু’টি বোয়িং বিমান কেনা হবে’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:০৩

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জন্য আরো দুটি বোয়িং বিমান কেনার ইঙ্গিত দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যে বিমানগুলো রয়েছে সেগুলো ছাড়াও বিমানের বহরে আরো তিনটি ড্যাশ বোম্বাডিয়ার বিমান যোগ হবে। আমরা আরো একটি খবর পেয়েছি যে, বোয়িং শীগ্রই তাদের আরো দুটি বিমান বিক্রয় করবে, তা কেউ অর্ডার দিয়ে নেয়নি। সুযোগটা আমরা নেব।’
শেখ হাসিনা আজ বিকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে বিমানের বহরে ৪র্থ ড্রিমলাইনার রাজহংস’র যুক্ত হওয়া উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।
এ প্রসংগে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের রিজার্ভের পরিমাণ ভালো রয়েছে। কাজেই নিজস্ব অর্থে আরো দুটি বিমান ক্রয় করলে সমস্যা হবে না মর্মে উল্লেখ করে তিনি যাত্রীসেবা বাড়ানোর মাধ্যমে বাংলাদেশের ভৌগলিক অবস্থানকে কাজে লাগিয়ে যাত্রী পরিবহন বৃদ্ধিতেও বিমান সংশ্লিষ্টদের মনোনিবেশ করার নির্দেশ দেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সবসময় আমরা রিজার্ভ হিসাব করি এই কারণেই কেননা কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ-দুর্বিপাক দেখা দিলে আমাদের যদি খাদ্য কিনতে হয় তাহলে যেন তিন মাসের খাদ্য আমরা কিনতে পারি সে পরিমাণ অর্থ জমা থাকতে হবে। এর অতিরিক্ত অর্থ রেখে দেয়ার কোন প্রয়োজন নাই। সেটা আমরা উন্নয়নের কাজে লাগাতে পারি।’
তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যেই খাদ্য উৎপাদনে আমরা স্বয়ং সম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। কাজেই খুব যে আমরা বিপদে পড়বো তা নয়।
প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য যে পরিমান মজুতের দরকার তা আমরা মজুত রাখছি।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খাদ্য গুদাম বা সাইলোগুলোতে কুলিং সিষ্টেম করে দিচ্ছি যাতে খাদ্য অন্তত দুই-তিন বছর ভাল থাকতে পারে। কাজেই সমস্ত দিক বিবেচনা করেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি’।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মহিবুল হক, বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল (অব:) মুহাম্মাদ এনামুল বারী অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও মোকাব্বির হোসেইন স্বাগত বক্তৃতা করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
কুদ্দুস্ ব্যইয়াতি
১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:১০

একটা দেশের বাস ট্রেন প্লেন লঞ্চ সব কিছুই যদি প্রাইম মিনিস্টারকে গিয়ে ওপেন/ চালু করাতে হয় তো ৭০/৭৫ জন মন্ত্রীর কাজগুলো কি?

অন্যান্য খবর