× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার

কুর্দিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালালে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেবো: ট্রাম্প

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৬:৪৫

বাড়াবাড়ি করলে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত জানানোর পর তুরস্ককে এ নিয়ে সীমা না ছাড়ানোর হুশিয়ারিও এলো যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে। এ নিয়ে বেশ কয়েকটি ক্ষোভে ভরা টুইট করেন ডনাল্ড ট্রাম্প। এতে তিনি সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার নিয়ে তার সিদ্ধান্তের পক্ষে যুক্তি দেন। তবে তার এমন সিদ্ধান্তের ঘোড় বিরোধিতা করছেন রিপাবলিকান আইনপ্রনেতারাই। তাদের ধারণা, মার্কিন সেনারা সরে আসলে সেখানকার কুর্দিরা হুমকির মুখে পড়বে।

সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধানতম মিত্র ছিলো কুর্দিরা। কিন্তু তুরস্ক কুর্দিদের সশস্ত্র বাহিনী এসডিএফকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করেছে। সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের এক হাজাররের মতো সেনা সদস্য রয়েছে।
তবে এখন পর্যন্ত মাত্র দুই ডজন সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছে।

সোমবার ট্রাম্প বলেন, সিরিয়ার যুদ্ধ থেকে বেড়িয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন সেখানে কী হবে তা তুরস্ক, ইউরোপ, সিরিয়া, ইরান, ইরাক, রাশিয়া ও কুর্দিদেরই ঠিক করতে হবে। এর জবাবে কুর্দিরা বলছে, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের পেছন থেকে ছুরি মেরেছে। তবে এরপরই ট্রাম্প তুরস্ককে হুঁশিয়ারি বার্তা দেন। বলেন কুর্দিদের নিয়ে তুরস্ক বাড়াবাড়ি করলে তাদের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়া হবে। বাড়াবাড়ি বলতে তিনি কী বুঝিয়েছেন তার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন ট্রাম্প। এক টুইটে তিনি বলেন, তুরস্কের এমন কিছু করা উচিৎ না যেটাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে অমানবিক মনে হয়। যদি কোনো মানুষ কষ্ট পায় তাহলে তুরস্ককে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর