× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার

রাণীশংকৈলে এলজিইডি’র ১৭ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ

বাংলারজমিন

মো রেজাউল প্রধান, ঠাকুরগাঁও থেকে | ৯ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৮:০৯

২০১৮-১৯ এবং ২০১৯-২০ অর্থবছরে রাণীশংকৈল উপজেলায় এলজিইডি’র প্রায় ১৭ কোটির টাকার উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রকৌশলী তারেক বিন ইসলাম। এসব কাজের মধ্যে ১৫টি জিপিএস (সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়), যার চুক্তিমূল্য ৬ কোটি ৮২ লাখ, ২১টি এনএনজিপিএস (নব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়), যার চুক্তিমূল্য ১০ কোটি ১৬ লাখ টাকা। এছাড়াও পিইডিপি-৪ এর আওতায় ১৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দরপত্র আহ্বান প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এবং ২টি ভূমি অফিসের কাজ চলমান। সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, যে সমস্ত ভবন নির্মাণের কাজ চলছে ঠিকাদারদের কাছ থেকে কাজ ভালভাবে আদায় করে নেয়ার জন্য সারাদিন মাঠে পরিশ্রম করছেন রাণীশংকৈল উপজেলা প্রকৌশলী তারেক বিন ইসলাম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম ও নক্সাকার উপ-সহকারী প্রকৌশলী হাফিজুল ইসলাম হেলাল। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন ঠিকাদার মানবজমিনকে জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন এলজিইডি’র মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন করছেন, তখন নামধারী কিছু সাংবাদিক আমাদের (ঠিকাদারদের) কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করছে। তাদেরকে চাঁদা না দিলে তারা পত্রিকায় উল্টা-পাল্টা সংবাদ প্রকাশ করে এলজিইডি’র ভাবমূর্তি নষ্ট করে সরকারের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করে। এসব হলুদ সাংবাদিকের চাঁদাবাজি বন্ধের জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর