× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার

প্রফেসর আনিসুজ্জামান ব্যথিত

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ৯ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৯:৩৬

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় ব্যথিত জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান। তিনি বলেছেন, ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে এভাবে একজনকে প্রাণ দিতে হবে এটা ভাবা যায় না। সমাজের সবাই মিলে মূল্যবোধের চর্চা করলে এ ধরনের ঘটনা এড়ানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি। আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সংবাদ মাধ্যমকে দেয়া সংক্ষিপ্ত প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, বুয়েটের ছাত্র হত্যার ঘটনায় আমি গভীরভাবে মনে কষ্ট পেয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হওয়ার কথা চিন্তার স্বাধীনতা, বক্তব্য প্রকাশের স্বাধীনতার সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র। সেখানে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়ার জন্য একজনকে প্রাণ দিতে হলো, সেটা ভাবতেই খুব কষ্ট হয়। এতে বুঝা যায় আমাদের মূল্যবোধ  কেমন সঙ্কটের মধ্যে পড়েছে। এই ঘটনায় যারা দায়ী তাদের হয়তো শাস্তি হবে, কিন্তু সেটাই এ ঘটনার শেষ হতে পারে না।
যতক্ষণ না পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের বিকাশ ঘটাতে পারছি ততক্ষণ পর্যন্ত এই মূল ব্যাধির উপশম হবে না। সেইজন্যে আমি আহবান জানাবো শিক্ষকদের, অভিভাবকদের এবং সমাজের সর্বস্তরের মানুষদের যে আমরা সকলে মিলে যেন মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করি। তাহলে এ ধরণের অরাজক অবস্থার সম্মুখিন হতে হবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
হুমায়ূন কবির
১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ২:৫৪

আধ্যাপক আনিসুজ্জামান, আধ্যাপক আবু সাঈদ এরা কখনো দেশের সংকটময় মুহূর্তে সত্য ও সঠিক কথা বলেনা।এরাশুধু নারীর চুল আর দুলের সৌন্দর্যেেে প্রশংসা করে।এরা ধরি মাছ না ছুয়ে পানি এই নীতি অবলম্বন করে।এরা হচ্ছে সার্থপর। আগের দিনের রাজকীয় কবিদের মত চামচা।

আমির
৯ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৯:৩২

আনিসুজ্জামান সাহেবরা শুধু ব্যথিত বলে দায় এড়াতে পারেন না। এমন কর্তৃত্ববাদী শাসনব্যবস্থা কায়েমের পিছনে আপনাদের অবদান অনেক। ইতিহাস আপনাদের ক্ষমা করবে না। এমন মেরুদণ্ডহীন বুদ্ধিজীবীরাই দেশে সংকট সৃষ্টিতে প্ররোচনা দেয়।

মাসউদুল গনি
৯ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ১১:৩৫

আবরার কেন জীবন দিল? সে প্রশ্ন কি আমরা এড়িয়ে যাচ্ছি না!? ভারতের সাথে কেন অনৈতিক চুক্তি? সেটা কি কোন বিষয় না? তাহলে এ আত্মত্যাগের কি দাম আছে?

রাহমান
৮ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৭:৩৬

স্যার আপনার কথা সত্যি কিন্তু যেখানে লীগ নামক দলটি বর্বরোচিত বেবিচারিত অসহিষ্ণু সেখানে কিভাবে মুল্যবোধ আশাবাদী। এইটা আশা করা যাইনা

রাকিব হাসান
৮ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৫:৫৫

স্যার, শিক্ষক, ছাত্র ,অভিভাবকের মূল্যবোধের আগে রাষ্ট্রের মূল্যবোধ দের বিকাশ জরুরি ।রাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক চরিত্র না থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ও গণতান্ত্রিক চরিত্র আসেনা । রাষ্ট্র চলছে স্বৈরতান্ত্রিক পন্থায় এর চর্চা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও হচ্ছে, এই সহজ সত্যটা আপনি কেন উপলব্ধি করতে পারছেন না । আপনিও দলকানা বুদ্ধিজীবীদের অংশ হয়ে গেছেন । এজন্য ক্ষোভ প্রকাশ না করে আপনি ব্যথিত হচ্ছেন । এর আগে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কর্মসূচিতে আপনি মাঠে নেমেছেন । এরকম নৃশংস ঘটনার প্রতিবাদে ক্ষোভে ফেটে পড়ুন, সাধারন ছাত্রদের কাতারে নেমে আসুন । সবাইকে বুঝতে দিন আপনার স্বাধীন বিবেক আছে । যে বিবেক হাসিনা এবং ভারতের কাছে বন্ধক নেই ।

অন্যান্য খবর