× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার

চুনারুঘাটে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা

বাংলারজমিন

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি | ১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৫৫

চুনারুঘাট সীমান্তের দুধপাতিল গ্রামের কিশোরী তামান্নাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা আঃ হান্নান তামান্নার চাচাতো ভাই আলমগীরকে আসামি করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ আলমগীরকে মঙ্গলবার রাতে তার শ্বশুরবাড়ি মীরপুর থেকে আটক করেছে। এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, সীমান্তের গাজীপুর ইউনিয়নের দুধপাতিল গ্রামের আঃ হান্নানের কিশোরী কন্যা তামান্না আক্তার প্রিয়া (১৫)’র মরদেহ বাড়ি থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে একটি বৃক্ষ বাগানে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় এলাকার লোকজন। মঙ্গলবার সকালে পুলিশ তামান্নার মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। স্থানীয়রা জানান, তামান্নার মা সেলিনা খাতুন দেড় বছর যাবৎ বিদেশে রয়েছেন। বাড়িতে ভাই টুটুল (৮) এবং বাবা আঃ হান্নান (৩৫)কে নিয়ে তামান্না ছোট একটি ঘরে বসবাস করতো। এদিকে তামান্নার চাচাতো ভাই আলমগীর তার বউ-বাচ্চা নিয়ে সপ্তাহ খানেক আগে বাড়িতে আসেন।
তিনি ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। ঘটনার দিন আলমগীর বউকে শ্বশুর বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে তিনি এলাকায় থেকে যান। আলমগীর এর আগে আরো ২টি বিয়ে করেছেন। পুলিশ তাকে মীরপুর থেকে গ্রেপ্তার করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এদিকে পুলিশ বলছে, তামান্নাকে হত্যার আগে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ সূত্র জানান, ময়না তদন্তে তামান্নাকে গণধর্ষণ করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে। এ ছাড়া পুলিশ তামান্নার বাবাকেও সন্দেহের তালিকায় রেখে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর