× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার

খুলনায় ‘অতিরিক্ত মদপানে’ মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১১ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ৭:৩০

 খুলনায় ‘অতিরিক্ত মদপানে’ নারীসহ আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মদপানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৮ জনে। বুধবার বিকাল থেকে রাতের মধ্যে ওই তিনজনের মৃত্যু হয়। নিহত তিনজন হলো- রায়পাড়া ক্রস রোডের বিমল শীলের ছেলে অমিত শীল (২২), নির্মল দাসের ছেলে দীপ্ত দাস (২২) ও সুকুমার বিশ্বাসের মেয়ে ইন্দ্রানী বিশ্বাস (২৮)। খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের চিকিৎসক খালেদ মাহমুদ জানান, অমিত শীল খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছে। রূপসার আইচগাতী ক্যাম্প উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহীম জানান, ইন্দ্রানী ও দীপ্ত গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ‘অতিরিক্ত মদপানে’ ২ ভাইসহ ৫ জনের মৃত্যু হয়। নিহত পাঁচজন হলো- নগরীর গল্লামারী এলাকার নরেন্দ্র দাসের ছেলে প্রসেনজিৎ দাস (২৯), তাপস (৩২), ভৈরব টাওয়ার এলাকার মানিক বিশ্বাসের ছেলে রাজু বিশ্বাস (২৫), রূপসা উপজেলার রাজাপুর এলাকার পরিমল ও নগরীর গ্যালাক্সির মোড় এলাকার প্রদীপ শীলের ছেলে সুজন শীল (২৬)।
খুমেক হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আলমগীর ও ডা. ওমর ফারুক জানান, হতাহতরা দুর্গাপূজার বিজয়া দশমীতে আনন্দ উপভোগ করতে গিয়ে মদপান করেছিলেন। অতিরিক্ত মদপানে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। খুলনার সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আবদুর রাজ্জাক জানান, অতিরিক্ত মদপানে আটজনের মৃত্যু হয়েছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. রাশেদুজ্জামান জানান, যারা মারা গেছেন তাদের আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে যে, তারা বিদেশি মদ পান করেছিলেন। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিস্তারিত বলা যাবে যে, তারা অতিরিক্ত মদপান করেছিল কিনা বা মদের মধ্যে বিষাক্ত কিছু ছিল কিনা। মদের উৎস সন্ধান এবং বিক্রেতাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর