× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার

হরিপুরে সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা

বাংলারজমিন

হরিপুর (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি | ১১ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৫৯

হরিপুরে আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে দলীয় অভন্তরীণ কোন্দলে বুধবার বিকাল ৫টায় দলীয় অফিসের সামনে দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।
ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে উপজেলা প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় অফিসে আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এনামুল হক (সাবেক ইউপি মেম্বার) জহিরুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ রয়েল ও মহিরুল ইসলামসহ ৮ জন আহত হয়েছে। সংঘর্ষের সময় ৪টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।
অগ্নিসংযোগের সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে আসে।
উপজেলা চেয়্যারমান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হাসান মুকুল বলেন, বুধবার বিকালে আওয়ামী লীগের উপজেলা কমিটির বর্ধিত সভা চলছিল। এমন সময় যারা নৌকার বিপক্ষে নির্বাচন করেছিল তাদের নেতৃত্বে হঠাৎ করে আমাদের ওপর লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমাদের কয়েকজন দলীয় নেতাকর্মী আহত হন এবং কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।
ভাইস চেয়ারম্যান হরিপুর উপজেলা পরিষদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আবদুল কাইয়ুম পুষ্প বলেন, মেয়াদ উত্তীর্ণ উপজেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নগেন কুমার পাল ও সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল হাসান মুকুলের নেতৃতে দলীয় গঠনতন্ত্র অমান্য ও অবৈধভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে এবং অগণতান্ত্রিক ভাবে উপজেলা কমিটির কয়েকজন নেতাকর্মীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে বহিষ্কার করে। এ সময় উভয় গ্রুপের মধ্যে বিতর্ক হলে এক পর্যায়ে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।
পূর্ব-পরিকল্পনা অনুযায়ী এ সময় তারা লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল করিম বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে ১৪৪ ধারা জারি করে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত দলীয় কার্যালয় এলাকায় ১৪৪ ধারা বহাল থাকবে।
হরিপুর থানার অফিসার ইনচাজ আমিরুজ্জামান বলেন দলীয় কার্যালয়ে ১৪৪ ধারা বহাল ও আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর