× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

সিরিয়ার অভ্যন্তরে তুরস্কের অভিযানে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭৭

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৮:২৭

সিরিয়ার অভ্যন্তরে গত তিন দিনের অভিযানে ২৭৭ জনকে হত্যা করেছে তুরস্কের সামরিক বাহিনী। কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনীকে সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে হটিয়ে সেখানে সেফ জোন তৈরি করাই এই অভিযানের লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। তবে এ নিয়ে বিশ্বব্যাপী তীব্র নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক চাপও জোরদার হচ্ছে তুরস্কের বিরুদ্ধে। এ খবর দিয়েছে আল-জাজিরা।
তুরস্ককে তার চলমান আগ্রাসন নিয়ে হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন ডনাল্ড ট্রাম্পও। টুইটারে তিনি লিখেছেন, এখন সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের তিনটি বিষয় করার আছে। প্রথমত, আমরা চাইলে হাজার হাজার সেনা পাঠিয়ে তুরস্ককে থামাতে পারি। দ্বিতীয়ত আমরা তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দিতে পারি।
তৃতীয়ত তুরস্ক ও কুর্দিদের মধ্যে একটা মধ্যস্থতা করতে পারি।

গত বৃহস্পতিবার বিশ্বজুড়ে নেতারা তুরস্কের সাম্প্রতিক অভিযান নিয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। এরমধ্যে ছিলো পশ্চিমা রাষ্ট্রগুলো ছাড়াও আরব রাষ্ট্রগুলোও। এ ছাড়া ইরান, রাশিয়াও তুরস্ককে সেনা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছে। কুর্দি অধ্যুসিত এলাকায় মানবিক সংকটের আশঙ্কাও প্রকাশ করেছে দেশগুলো।
এদিকে ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটি জানিয়েছে, ৬৪ হাজার মানুষ ইতিমধ্যে সিরিয়ার উত্তর পূর্বাঞ্চল থেকে পালিয়ে গেছে। ফলে সেখানে সৃষ্টি হয়েছে বড় ধরনের সংকট। সংস্থাটি জানিয়েছে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। তাদের হিসেবে যদি তুরস্কের অভিযান চলতে থাকে তাহলে ৩ লক্ষাধিক মানুষকে বাস্তুচ্যুত হতে হবে। ফলে মধ্যপ্রাচ্যে সৃষ্টি হবে আরেকটি অস্থিতিশীলতা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর