× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ নিহত ২

অনলাইন

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি | ১২ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ১০:৫৭

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক রোহিঙ্গাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি দেশীয় এলজি, ৮ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে।
শনিবার ভোরে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পর্যটন বাজারের উত্তরে মালির পাহাড়ে এই বন্দুকযুদ্ধের  ঘটনা ঘটেছে। এ সময় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়।
নিহত মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাতিয়ার ঘোনা এলাকার হাজী হামিদ হোসেনের ছেলে আহাম্মদ হোসেন(৪৫) ও হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি ব্লকের মৃত কালা মিয়ার ছেলে আব্দুর রহমান (৪৬)।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, শুক্রবার দিনগত রাত সাড় ১২ টারদিকে থানা পুলিশের একটি দল অভিযান পরিচালনা করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ও ৬টি মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি আহমদ হোসেন ও রোহিঙ্গা আব্দুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাদের থানায় নিয়ে এসে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ ও তাদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারের জন্য ভোর রাতে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পর্যটন বাজারের উত্তরে মালির পাহাড়ের দিকে অভিযান পরিচালনার জন্য পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। তাদের গুলিতে পুলিশের তিন সদস্য এসআই মোঃ বাবুল , এএস আই অহিদ ও কনস্টেবল মালেকুল আহত হন। আত্মরক্ষার্থে   পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। উভয়ের পক্ষের গোলাগুলিতে ধৃত আসামী আহাম্মদ হোসেন ও রোহিঙ্গা আব্দুর রহমান গুলিবিদ্ধ হয়।
গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুই জনকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার প্রেরণ করে। সেখানে পৌঁছালে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।
তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে দুটি এলজি, ৮ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
নিহত দুই জনের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এই ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে বলেও জানান ওসি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর