× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার
ছাত্র রাজনীতি প্রসঙ্গে কাদের

‘মাথা ব্যথা হলে তা কেটে ফেলা সমাধান নয়’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৩:৪৪

আওয়ামী লীগ ছাত্র রাজনীতি বন্ধের পক্ষে নয়। অধিকাংশ রাজনীতিবিদের হাতেখড়ি ছাত্র রাজনীতি থেকে। ছাত্র রাজনীতি বন্ধ প্রসঙ্গে এমনটাই মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, মাথা ব্যাথা হলে মাথা কেটে ফেলা সমাধান নয়।
আজ রোববার দুপুরে রাজশাহী সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে উত্তরে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, যারা ছাত্র রাজনীতির নামে অপকর্ম করবে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে দলের মধ্যে শুদ্ধি অভিযান চলছে। মাদক, জুয়া, টেন্ডাবাজি, দুর্নীতিসহ সব ধরনের অপকর্মের বিরুদ্ধে এই শুদ্ধি অভিযান।
প্রথমে ঘর থেকে শুরু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সবখানে এই অভিযান চালানো হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
শাজিদ
১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:২৮

সত্য বলেছেন, তবে মাথা ব্যথার চিকিৎসা আগে থেকে নেন নাই কেন? এর জবাব আগে দেন।

Mohd.Makbul Hossain
১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার, ৬:২৩

আপনাদের রাজনীতি দলীয় স্বার্থের রাজনীতি; জাতীয় স্বার্থে কোন ক্ষমতাসীন দল রাজনীতি করে না। বাংলাদেশে বর্তমান অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে ছাত্র রাজনীতির কোন প্রয়োজন নাই। অমিত সাহার মতো একটা হিন্দু ছাত্র আবরার ফাহাদকে শিবির সন্দেহে মারার নির্দেশ দেয় অবশ্য তার (অমিত সাহার) কাছে ফাহাদের ব্যাপারে কোন গোয়েন্দা রিপোর্ট ছিল না। অন্যদিকে, অমিত সাহা জাতে হিন্দু সে তাবলীগ,জামায়েত শিবির, ইশা/ঐক্য জোট ইত্যাদি ইসলামী দলগুলোর মধ্যে মূল পার্থক্য সম্পর্কে কিছুই জানে না। এ ব্যপারে বিস্তারিত বিশ্লেষণ করলে সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা আপনাদের।

Kazi
১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার, ১২:১১

ছাত্র রাজনীতি চলবে রাজনৈতিক দলের পরিচয়হীন । এটাই চলছে উন্নত বিশ্বে।

Nurul alam
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৮:৪৫

ছাত্র রাজনীতির এত নোংরাকাল কী কেউ বাংলার অতীতে দেখেছেন ? কাদের সাহেব বলুনতো আপনার ছাত্রলীগ আমাদের আকাঙ্খিত ভিপি নুরের ওপর কতবার হামলা চালিয়েছে ? ভাগ্যিস সে প্রাণে মরেনি। আপনি কী সেণ্ডলো মনে রাখেন?

K Patwary
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৮:৩৯

অ্যাভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্ররাজনীতি চলতে দেওয়া অসাংবিধানিক। যার কোনো আইনগত ভিত্তি নেই।’ তিনি বলেন, ‘বুয়েটের ছাত্র আবরারের নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর প্রমাণ হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্ররাজনীতি রাখার কোনো যৌক্তিকতা নেই।’।

Khadija
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৮:১০

Dear Obaidul Quader (doctor)sir, firstly you have to diagnose the disease; then you should prescribe the patient. this not a headache this is the cancer for nation; so its need surgery immediately before attack the other organ. How you think killing the brilliant student like a Abrar it's just like simple headache???

ওমর ফারুক
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৫:২৫

ওবায়দুল কাদের, তোমার মাথা ব্যাথায় তুমি মাথা নিয়ে থাক। আমাদের সন্তানদের নিরাপত্তা দাও। তোমার সন্তান থাকলে তো তুমি সন্তানের ব্যাথা বুঝতে। তোমার নিজের সন্তান হারালে কেমন লাগত? রাজনীতি কর সুষ্ঠ রাজনীতি কর। তোমরা যে রাজনীতি করছ এটা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি না। অভিভাবকদের আঘাত দিয়ে কথা বলবে না। তোমার সব চাটুকারিতার অবসান হবে যদি সুষ্ঠ নির্বাচন হয়। মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরেছ পরিবর্তন হলে না। আল্লাহ তোমাকে হেদায়েত দান করুন।

ইউসুফ কামাল
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৫:২৩

দুষ্ট গরুর ছেড়ে শুন্য গোয়াল অনেক ভাল । শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেে মানুষ শিক্ষার জন্য যায় , সন্ত্রাসী হওয়ার জন্য না। এখন দেখি শিক্ষার জন্য গিয়ে লাশ হয়ে ফিরতে হয় , এটা কোন ধরনের রাজনীতি।

Shamim Ahmed
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৫:১৩

The so called student politics is, now, a tumor with cancer. It must be removed.

ফারুকী
১৩ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৪:০৬

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার জন্য । শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে রাজনীতি বন্ধ করা উচিত-----?

অন্যান্য খবর