× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

লোহাগড়ায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

বাংলারজমিন

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি | ১৭ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৫১

উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন। গত মঙ্গলবার বিকাল ৫ টায় দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে চেয়ারম্যান নীনা ইয়াসমীনের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মুক্তিযোদ্ধা ও ইউনিয়ন আওয়া লীগের সহ-সভাপতি শেখ আবুল কালাম আজাদ।  তিনি বলেন, বিগত ২০১৪ সালে দিঘলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর দলের নাম ও ইউনিয়ন কার্যালয় নির্মাণের নামে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় দশ লক্ষাধিক টাকা নিয়েছেন। অথচ কার্যালয়টি আজও নির্মিত হয় নাই। তারা সাংগঠনিক কোনো কার্যক্রমও করে না। আসন্ন সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ইউনিয়নের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের বাদ দিয়ে অর্থের বিনিময়ে জামায়াত বিএনপি সমর্থিত নেতা-কর্মীদের ‘কাউন্সিলর’ করেছেন। বিগত  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সভাপতি স.ম. অহিদুর রহমান নৌকার বিপক্ষে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে পরাজিত হন। এ ছাড়া সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ শেখের বিরুদ্ধে ভূমিদস্যু ও জালিয়াতির একাধিক অভিযোগ রয়েছে।


তার চাচা আবু দাউদ শেখ যুদ্ধপরাধী মামলায় কারাগারে রয়েছেন। এবং ছোটভাই তুষার শেখ আন্তঃজেলা ডাকাতদলের অন্যতম সদস্য। তুষারের বিরুদ্ধে লোহাগড়াসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি, চুরি, ছিনতাই, ধর্ষণসহ অন্তত একডজন মামলা রয়েছে। তুষার বর্তমানে একটি ডাকাতি মামলায় নড়াইল কারাগারে রয়েছেন। সভাপতি-সম্পাদক ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতির ছেলে রুবেল ও ভাতিজা শামীমের চাকরির জন্য মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে দলীয় প্যাডে প্রত্যয়নপত্র প্রদান করেছেন। কাউন্সিলর মনোনয়নের ক্ষেত্রে সিনিয়র নেতাদের উপেক্ষা এমনকি নৌকা প্রতীকের বিজয়ী চেয়ারম্যান নীনা ইয়াসমীনকে কাউন্সিলর হিসেবে মনোনীত করে নাই। সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি, কৃষক, শ্রমিক-দিনমজুর ও গণমাধ্যমকর্মীসহ প্রায় তিন শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সভাপতি ও সম্পাদক তাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর