× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

বিজিবি-বিএসএফ ভুল বোঝাবুঝি আলোচনায় শেষ হবে

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৯:০৮

রাজশাহী সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে গোলাগুলির বিষয়টিকে ‘ভুল বোঝাবুঝি ও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা’ হিসেবে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, দুই বাহিনীর মহাপরিচালকদের  আলোচনার মধ্য দিয়েই এর সুরাহা হবে। গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘সমপ্রীতি বাংলাদেশ’ আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, পদ্মায় ভারতীয় জেলেদের ইলিশ ধরা নিয়ে জটিলতার পর  যে বিএসএফ সদস্যরা এসেছিল, তারা পতাকা বৈঠকের অপেক্ষা না করে চলে যাওয়ার সময় ‘উভয় পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির’ ওই ঘটনা ঘটে । তাতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর একজন সদস্য নিহত হন।

এ বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেখুন এটা একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা। বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে একটি চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে। হঠাৎ করে এই অ্যাক্সিডেন্টটা আমরা সবাই মর্মাহত হয়েছি। এ ঘটনাকে ভুল বোঝাবুঝি হিসেবে বর্ণনা করে মন্ত্রী বলেন, বিজিবি ও বিএসএফের মহাপরিচালকের মধ্যে আলাপ-আলোচনা চলছে।
আমরা মনে করি, দুজনের আলাপের মাধ্যমে একটা সুরাহা হবে।

উল্লেখ্য, বিজিবির ভাষ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশের ভেতরে চারঘাট থানার শাহরিয়ার খাল এলাকায় ঢুকে তিন ভারতীয় জেলে মাছ ধরছিল। মা ইলিশ সংরক্ষণ কর্মসূচির আওতায়  সেখানে একজন মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে বিজিবির অভিযান চলছিল। ওই সময় এক ভারতীয় জেলে বিজিবির হাতে আটক হলে বিএসএফের চার সদস্য অনুমতি ছাড়াই শূন্য রেখা পেরিয়ে তাদের ছাড়িয়ে নিতে আসেন। তখন বিজিবি পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভারতীয় জেলেকে হস্তান্তরের কথা বললে বিএসএফ তাকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এবং  গোলাগুলির সূত্রপাত হয় বলে বিজিবির ভাষ্য। বিএসএফের একটি বিবৃতির বরাত দিয়ে এনডিটিভির খবরে বলা হয়, বিজিবি সদস্যদের গুলিতে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর হেড কনস্টেবল বিজয় ভান সিং নিহত এবং আরও একজন গুলিবিদ্ধ হন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর