× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

যুবলীগের দায়িত্ব পেলে ভিসি পদ ছেড়ে দেবো

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৯:০৯

যুবলীগের দায়িত্ব নিতে নিজের আগ্রহের কথা জানিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভিসি অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। এ জন্য তিনি ভিসির পদ ছাড়তেও রাজি আছেন।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টক শোতে এসব কথা বলেন ভিসি ড. মীজানুর রহমান। বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় ওই টক শোটি প্রচারিত হয়। গতকাল দুপুর  পৌনে ১টায় নিজের ফেসবুক  পেজে ওই টক  শোর ভিডিওটি শেয়ার দেন তিনি।

অধ্যাপক মীজানুর রহমান যুবলীগের বর্তমান কমিটির প্রথম প্রেসিডিয়াম সদস্য। তবে তিনি জানিয়েছেন, ভিসি হওয়ার পর তিনি যুবলীগের  কোনো বৈঠকে যাননি। ওই টক  শোতে যুবলীগ প্রসঙ্গটি আলোচনায় আসে। এ বিষয়ে ভিসি ড. মীজানুর রহমান বলেন, ‘আমাকে যদি বলা হয়, আপনি যুবলীগের দায়িত্ব নিতে পারবেন কি না? তবে আমি সঙ্গে সঙ্গে উপাচার্য বা চাকরি  ছেড়ে  দেব এবং যুবলীগের দায়িত্ব  নেব।’ ভিসি আরও বলেন, ‘আমি উপাচার্য হওয়ার পর যুব লীগের আর  কোনো মিটিংয়ে যাই না। তবে যদি আমাকে এখনো বলা হয় যুবলীগের দায়িত্ব নিতে হবে, আমি ভাইস চ্যান্সেলরের পদ  ছেড়েই দায়িত্ব  নেব।
আমাকে যদি বলা হয়, আপনি যুবলীগের দায়িত্ব নিতে পারবেন কি না? তবে আমি সঙ্গে সঙ্গে উপাচার্য বা চাকরি ছেড়ে দিয়ে যুবলীগের দায়িত্ব  নেব। কারণ, এটা এত ভালোবাসার একটি সংগঠন, আমি উপাচার্যশিপ  ছেড়ে দিতে রাজি আছি।’

সমপ্রতি যুবলীগের বিভিন্ন  নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা ও  টেন্ডারবাজির অভিযোগ ওঠে। আর এ নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযানও চালায়। যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল  চৌধুরী সম্রাটসহ একাধিক  নেতা  গ্রেপ্তার হন। এর পর থেকে সংগঠন?টির  চেয়ারম্যান ওমর ফারুক  চৌধুরীর নামও উঠে আসে। এ ছাড়া ওমর ফারুক  চৌধুরীর বিদেশ  যেতে নিষেধাজ্ঞা ও ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Monir
২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৯:৫৬

ভোদরো লোকের অধীনে একটি শিক্ষার্থীও নিরাপদ নয় ।

সুলতান
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ২:২৬

কত বড় ক্ষমতা লোভীএ ভিসি? এ ভিসি নামের কলঙ্ক এ লোভী শয়তানকে কি ভাবেও কে ভিসি পদে নিয়োগ দিয়েছে? রাভিস কোথাকার।

Abdur Rahim
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৯:০৪

বিশ্ববিদ্যালয় এখন আর শিক্ষক নিয়োগ হয়না দলদাস নিয়োগ হয়। আর এজন্যই আবরাররা নিহত হয়।

Md. Harun al Rashid
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৪:৩১

His option for a new portfolio reveals that he was not happy with the post of VC and was seen to chase behind the TV cameras for talk shows despite he is a sage in the superior academic pedigree.

Tuhin
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ২:৫১

This is the result for a non elected government.The sacrifices during election now asking rewards.

Kazi
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ১:১০

কি দুর্দন্ড প্রতাপশালী পদ। একজন ভিসি‘র চাইতেও সম্মানিত না হলেও সন্ত্রাসির সহায়তায় প্রতাপ খাটানো যায় জনগণের উপর। টাকা তা মেশিন দিয়ে গুণতে হয়।

Amir
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ১২:৩৫

চাকরি ছেড়ে দিয়ে যুবলীগের দায়িত্ব নেব।-----বলেন কি !কথাটা কি স্বজ্ঞানে স্বেচ্ছায় বলেছেন?

মোঃ ফজলুল হক
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ১০:২৭

ভিসি মহোদয় নিজের বয়সটা মনে হয় ভুলেই গেছেন।

Nurul alam
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ১০:১৬

আপনাদের মত লোকদের ক্যরণেই বুয়েটে এ ঘটনা ঘটেছে। সকল ভর্সিটিতে আগ এত খারাপ অবস্থা। ছি !

Md. Fazlul hoque
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:০০

ভিসি সাহেবের চাকুরি হয়ত আর বেশি দিন নেই আর উনি একজন সাবেক ভিসি এ পরিচয়ে বাকী জীবন কাটাতে চান না,উনার লক্ষ্য অনেক সূদর প্রসারী, এমপি/মন্ত্রী.......

Md. Mizanur Rahman
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৮:০৮

He is a VC at the same time he is a presidium member of Jubo League. How a politician occupy the VC position!

z Ahmed
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৭:৪৯

Excellent, practical, appreciable, matured idea of a VC.

Sam
১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার, ৬:৪৩

Understand, a AL political post now how economical???????? Country is under such people and their leader is such persons' leader....

FAruki
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ১:৪৭

You will make crime and dream then present situation. We don't like see any more game.

ahammad
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ১:৪৩

সারা দেশে একই অবস্হা, দলীয় পরিছয়ে পদ পাওয়ার কারনে যেখানেই থাকেন সেখানে নিজ দলকেই সুযোগ সুবিদা দিয়ে থাকেন। নিরপেখ্খ থাকেন না বলেই আমাদের দেশে প্রতিটা সেক্টরেই দূনীতি মহামারী আকার ধারন করেছে। দলীয় লোক বলে দূনীতিবাজকে প্রশ্রয় দেওয়া হয় । জানিনা এই হতবাগা জাতী দলীয় মনোভাব ভাব থেকে মক্তি পাবে কিনা ???

Mohammed Moniruzzama
১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:১০

এদের মতো লোভী অপদার্থ কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয়র মতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্হান পায় ? আশ্চর্য্য, লোভী লোকদের জন্যই ভবিষ্যত অন্ধকার ।

অন্যান্য খবর