× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

‘দ্য হান্ড্রেড’-এ দল পাননি সাকিবরা কেউই

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:২১

ক্রিকেটের নতুন সংস্করণ ‘দ্য হান্ড্রেড’ টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটে দল পাননি বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা কেউই। আগামী বছর জুলাই-আগস্টে অনুষ্ঠেয় এই টুর্নামেন্টের সময় বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক সূচি রয়েছে। ঐ সময় বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট খেলবে। এরপরেই দেশের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। আন্তর্জাতিক সংআবদমাধ্যমের ধারণা,  এ কারণেই  সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালসহ অন্য বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের দলে ভেড়ায়নি ‘দ্য হান্ড্রেড’ লীগের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফটে প্রাথমিক তালিকায় ৬ জন বাংলাদেশি থাকলেও চূড়ান্ত তালিকায় সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদুল্লাহ, মোস্তাফিজসহ ১১ বাংলাদেশি ক্রিকেটার সুযোগ পান। ‘ইউনিভার্স বস’ ক্রিস গেইল, লাসিথ মালিঙ্গার মতো টি টোয়েন্টির তারকা ক্রিকেটাররা এই আসরে উপেক্ষিত। আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ব্যাটসম্যান বাবর আজম, কাইরন পোলার্ড, ডোয়াইন ব্রাভোর মতো খেলোয়াড়ও রয়ে গেছেন অবিক্রীত।
রোববার লন্ডনে ৮ দলের আইকন খেলোয়াড়দের উপস্থিতিতে ‘দ্য হান্ড্রেড’ টুর্নামেন্টের প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠিত হয়।
৭ রাউন্ডে ড্রাফট অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি রাউন্ড থেকে এক দল দু’জন করে ক্রিকেটার নেয়ার সুযোগ পায়। ৭ রাউন্ড থেকে ২ জন করে মোট ১৪ জন, আর কেন্দ্রীয় চুক্তির ১ জন করে মোট ১৫ জন ক্রিকেটার নিয়ে দল সাজায় ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। ড্রাফটে প্রথম ও দ্বিতীয় রাউন্ডে ১ লাখ ২৫ হাজার পাউন্ডের খেলোয়াড়দের তোলা হয়। এই দামে বিক্রি হওয়া বিদেশি ক্রিকেটার হচ্ছেন রশিদ খান  (ট্রেন্ট রকেটস), আন্দ্রে রাসেল (সাউদার্ন ব্রেভ), অ্যারন ফিঞ্চ (নর্দান সুপারচার্জার্স), মিচেল স্টার্ক (ওয়েলস ফায়ার), সুনিল নারিন (ওভাল ইনভিন্সিবলস), গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (লন্ডন স্পিরিট), ডি আর্চি শর্ট (ট্রেন্ট রকেটস), ডেভিড ওয়ার্নার (সাউদার্ন ব্রেভ), স্টিভেন স্মিথ (ওয়েলস ফায়ার), মুজিব উর রহমান (নর্দান সুপার চার্জার্স) এবং ইমরান তাহির (ম্যানচেস্টার ওরিজিনালস)। এছাড়াও স্টিভেন স্মিথ, ক্রিস লিন, মোহাম্মদ নবি, মোহাম্মদ আমির, ড্যান ক্রিস্টিয়ান, সন্দ্বীপ লামিচানে ছাড়াও আরো অনেক বিদেশি ক্রিকেটার দল পেয়েছেন। ক্রিকেটের নতুন এই সংস্করণে ১০০ বলে শেষ হবে এক ইনিংস। একজন বোলার ম্যাচে সর্বোচ্চ ২০ বল করতে পারবেন। ওভারের নিয়ম থাকবে না, বোলাররা চাইলে ৫ বল বা ১০ বল করে বিরতি নিতে পারবে। পাওয়ার প্লে হবে ২৫ বলের।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর