× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

‘খালেদার সঙ্গে ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের সাক্ষাৎ নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী’

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:০২

কারবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পেয়েছেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। গতকাল খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতির বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে সচিবালয়ে দেখা করেন ঐক্যফ্রন্টের আট নেতা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাক্ষাতের বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন বলে মানবজমিনকে জানিয়েছেন জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, সাবেক তিন বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ। এই বিষয়ে পত্র পত্রিকায় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর আসছে, তাই আমরা উনার সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাত করে তার শারিরীক আবস্থা জানতে চাই। এই জন্য আমরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অনুমতি চেয়েছি। উনি বলেছেন, দেখা করার জন্য আমাদের কোন বাধা নাই। আপনার সবাই দেখা করতে পারবেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আমাদের একসঙ্গে অথবা বিচ্ছিন্নভাবে দেখা করার জন্য উনি আইজি প্রিজনকে বলে দিবেন। কবে বা কখন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করবেন এমন প্রশ্নে রব বলেন, এই বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। উনি আইজি প্রিজনকে বলবেন। আর আইজি প্রিজন আমাদের সবাইকে ফোন করে বলবেন দেখা করার সময়। তারপরেই আমরা ড. কামাল হোসেন নেতৃত্বে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যাবো। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সচিবালয়ে সাক্ষাতের সময় আ স ম রবের সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, গণফোরামের নির্বাহী কমিটির সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, বিকল্পধারা বাংলাদেশের আহবায়ক নুরুল আমিন বেপারী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফেরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া, জেএসডির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন ও ঐক্যফ্রন্টের দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।   

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতে জেল কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
খালেদা জিয়াকে দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার অসুস্থতার খবর জানতে ও তার সঙ্গে দেখা করার বিষয়ে বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের নেতারা আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আ স ম আবদুর রবের নেতৃত্বে কয়েকজন এ বিষয়ে কথা বলতে এসেছিলেন। আমি তাদের বলেছি আইজি প্রিজন জেল কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। গতকাল বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের আট সদস্যের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সচিবালয়ে নিজ কক্ষে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসময় দাবি করেন, খালেদা জিয়াকে দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার চিকিৎসায় কোনো গাফিলতি নেই। তাকে আগে যে চিকিৎসকরা দেখতেন, তারাও বর্তমানের চিকিৎসক দলে আছেন। এসময় সাংবাদিকরা জেল কোড অনুসরণ করলে আত্মীয়-স্বজনের বাইরে খালেদা জিয়ার সঙ্গে অন্যদেরও দেখা করার সুযোগ কম, বিষয়টি উল্লেখ করলে মন্ত্রী বলেন, অনেকেই তো উনার (খালেদা জিয়া) সঙ্গে দেখা করেছেন, এ বিষয়টি আইজি প্রিজনস দেখবেন। তিনি আরো জানান, ২২শে অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আবরার হত্যার প্রতিবাদে ঐক্যফ্রন্টের পূর্বঘোষিত সমাবেশের অনুমতির বিষয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ডিএমপি কমিশনার সবদিক বিবেচনা ও পরীক্ষার পর ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশের অনুমতি দেবেন কিনা তা তার বিষয়, এটি ডিএমপি কমিশনার দেখবেন। তবে ঐক্যফ্রন্ট সমাবেশ করতে চাইলে আমাদের দল আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
তারেক
২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৭:১৫

খালেদার সাথে দেখা করবেন, বিবৃতি দিবেন তারপর আপনাদের কাজ শেষ। আর বেগম জিয়া জেলখানায় ধুকে ধুকে মরবে। আপনারা কিছুই করবেন না। বিএনপির যতটুকু শক্তি ছিল সেটুকুও এদের পিছনে নষ্ট করছে। খুবই দুঃখজনক। ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা ছিল একটা গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। বিএনপির অনেক বড় নেতাই এখানে যুক্ত। যারা ব্যর্থ তাদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। পরিবর্তন ছাড়া রেজাল্ট আশা করা বোকার কাজ।

অন্যান্য খবর