× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

লজ্জায় সমাপ্তি দক্ষিণ আফ্রিকার

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১:১৪

নিজেদের টেস্ট ইতিহাসে প্রথমবার ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুটিতে শোচনীয়ভাবে হারে প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয়দিন বিকালে ২ উইকেট হারানো প্রোটিয়ারা গতকাল একদিনে ১৬ উইকেট হারায়। আর চতুর্থ দিন সকালে মাঠে নেমে মাত্র ৯ মিনিট স্থায়ী হয় তাদের ইনিংস। দিনের প্রথম দুই ওভারে গুটিয়ে গিয়ে শেষ টেস্টে ইনিংস ও ২০২ রানে পরাজিত হয় ফাফ ডু প্লেসির দল। প্রথম ইনিংসে ভারতের ৪৯৭/৯ এর রানের জবাবে প্রথম ইনিংসে ১৬২ রানে অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৩৩ রানে অলআউট হয়।
প্রথম ইনিংসে ৯/২ নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করা দক্ষিণ আফ্রিকা অভিষিক্ত জুবায়ের হামজা (৬২) ও টেম্বা বাভুমার (৩২) জুটিতে ১৬২ রানের সংগ্রহ পায়।
ভারতের হয়ে উমেশ যাদব ৩টি, মোহাম্মদ শামি, অভিষিক্ত শাহবাজ নাদিম ও রবীন্দ্র জাদেজা প্রত্যেকে শিকার ২ উইকেট।
প্রথম ইনিংসে ৫৬ ওভার খেলা প্রোটিয়ারা ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করে ৪৮ ওভার। প্রথম সারির ৬ ব্যাটসম্যানের মধ্যে কেবল ডিন এলগার (১৬) দুই অঙ্কের কোঠা ছুঁতে পারেন। শূন্য রানে আউট হন প্রথম ইনিংসে রান পাওয়া জুবায়ের হামজা ও টেম্বা বাভুমা। অধিনায়ক ডু প্লেসির সংগ্রহ ৪ রান। এক পর্যায়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ছিল ৩৫/৫। ২০১৫ সালে নাগপুরে ৭৯ রানে অলআউট হওয়ার লজ্জা উঁকি দিচ্ছিলো প্রোটিয়াদের। তবে জর্জ লিন্ডের ২৭ আর ডেন পিয়েতের ২৩ রানের সুবাদে ভারতের বিপক্ষে সর্বনি¤œ দলীয় সংগ্রহটা পেরিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। আর এনরিক নরতিয়েকে (৫*) সঙ্গী করে ম্যাচটাকে চতুর্থ দিনে নিয়ে আসেন থিউনিস ডি ব্রুইন (৩০)। আজ সকালে ভারতের অভিষিক্ত স্পিনার শাহবাজ নাদিম দিনের দ্বিতীয় ওভারের শেষ দুই বলে উইকেট নিয়ে প্রোটিয়া ইনিংসের সমাপ্তি টানেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের হয়ে মোহাম্মদ শামি ৩টি, শাহবাজ নাদিম ও উমেশ যাদব ২ উইকেট নেন। ২০০৫ সালের পর ৩ টেস্ট সিরিজে প্রথমবার হোয়াইটওয়াশ হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। দ্বিশতকের জন্য ম্যাচসেরার পাশাপাশি সিরিজসেরা হন সিরিজে ৫২৯ রান করা রোহিত শর্মা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর