× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার

হংকংয়ে ‘ভুয়া সমর্থকের’ ছুরিকাঘাতে আহত চীনপন্থি আইনপ্রণেতা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ১২:৪২

ভুয়া সমর্থকের ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন হংকংয়ের চীনপন্থি আইনপ্রণেতা জুনিয়াস হো। বুধবার অনলাইনে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, হো’র দিকে ফুল হাতে এগিয়ে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি। তার কাছাকাছি যাওয়ার পর তিনি একটি ব্যাগে হাত দেন। বলেন, হো’র সঙ্গে একটি ছবি তুলতে চান তিনি। কিন্তু ছবি তোলার বদলে ব্যাগ থেকে একটি ছুরি বের করে আঘাত করেন হো’কে। তাৎক্ষণিকভাবে ওই হামলাকারীকে পরাস্ত করেন হো ও আশপাশে থাকা লোকজন।
বৃটিশ গণমাধ্যম জানিয়েছে, হংকংয়ে চলমান সরকারবিরোধী বিক্ষোভের ধারায় এই ঘটনা ঘটেছে। সম্প্রতি সহিংস হয়ে ওঠেছে সেখানকার বিক্ষোভ। চীনপন্থি স্থাপনায় ভাংচুর চালানো হচ্ছে।
চীনপন্থি ও চীন বিরোধীদের মধ্যেও দেখা গেছে সহিংসতা। পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের পরিমাণও বেড়েছে। প্রসঙ্গত, গত জুন মাসে হংকং সরকার এক প্রত্যর্পণ বিলের প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ শুরু হয়। ওই বিলে, হংকং থেকে চীনের মূল ভূখণ্ডে সন্দেহভাজন আসামীদের প্রত্যর্পণ করার অনুমোদন দেয়া হয়েছিল। বিক্ষোভকারীরা জানায়, এমনটা হলে হংকংয়ে চীনের প্রভাব বাড়বে। সাবেক বৃটিশ কলোনি হংকং। গত শতকের শেষ দশকে চীনের সঙ্গে যুক্ত হয় অঞ্চলটি। কিন্তু ‘এক দেশ দুই নীতি’ ব্যবস্থার আওতায় বেশকিছুটা স্বায়ত্তশাসন উপভোগ করে তারা। বিক্ষোভকারীদের অবিরাম কর্মসূচির মুখে প্রত্যর্পণ বিলটি বাতিল ঘোষণা করে হংকং কর্তৃপক্ষ। কিন্তু সময় যত গড়িয়েছে বিক্ষোভকারীদের দাবি ততই বেড়েছে। সব দাবি পূরণ করতে অস্বীকৃতি জানায় কর্তৃপক্ষ। চলতে থাকে বিক্ষোভ।
বিক্ষোভে একাধিকবার চীনের বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপের অভিযোগ ওঠেছে। বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালানোর জন্য চীনপন্থিরা গ্যাংস্টারদের ভাড়া করার অভিযোগও রয়েছে। জুনিয়ার হো’র বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালানোর ব্যবস্থা করেছিলেন। সাদা পোশাক পরিহিত মুখোশধারী ব্যক্তিরা মাস দুয়েক আগে বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালায়। হো ওই হামলার পর বলেন, হামলাকারীরা তাদের জন্মভূমি ও মানুষজনকে রক্ষা করছিল। কিন্তু হামলার সঙ্গে যোগসাজশ থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেন।
বুধবার নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছিলেন হো। চলতি মাসের শেষের দিকে সেখানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এমন সময় নীল টি-শার্ট ও একটি ক্যাপ পরিহিত এক ব্যক্তি তার দিকে ফুল নিয়ে এগিয়ে যায়। ফুল দেয়ার সময় ওই ব্যক্তি তাকে বলে, সবাই আপনার চেষ্টা দেখেছে।  এরপর হো’র সঙ্গে ছবি তোলার প্রস্তাব জানিয়ে মোবাইল বের করার কথা বলে ওই হামলাকারী। মোবাইলের বদলে তার ব্যাগ থেকে বেরিয়ে আসে ছুরি। আঘাত করেন হো’কে।
হামলার পর তাৎক্ষণিকভাবে হো’কে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় আরো দুই ব্যক্তি হালকা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, একজন সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করেছেন তারা।
সম্প্রতি হংকংয়ের বিক্ষোভে ব্যক্তি পর্যায়ে হামলার সংখ্যা বাড়ছে। গত সপ্তাহে এক শপিংমলে পাঁচ ব্যক্তির ওপর হামলা হয়। ওই ঘটনায় হামলাকারী স্থানীয় এক কাউন্সিলরের কান কামড় দিয়ে আংশিক ছিড়ে নেয়। গত মাসে অধিকারকর্মী জিমি শ্যামের ওপর হাতুড়ি দিয়ে হামলা চালায় পাঁচ ব্যক্তি। স্থানীয় গণমাধ্যম অনুসারে, আরো অন্তত তিন জন নির্বাচনী প্রার্থী সম্প্রতি হামলার শিকার হয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর