× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার

রংপুরে সরকারি গাছ কাটতে বাধা দেয়ায় পাউবো প্রকৌশলী ও কর্মচারীকে মারধর

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৫৯

 তিস্তার ডান তীররক্ষা বাঁধের মাটি এবং বাঁধের উপর থাকা সরকারি গাছ কাটতে বাধা দেয়ায় রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও তার এক কর্মচারীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। এ সময় হামলাকারীরা তার মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে। আহত ওই প্রকৌশলীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় কাউনিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা যায়, রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের শাখা-১ এর উপ-সহকারী প্রকৌশলী চাঁন মিয়া সোমবার দুপুরে তার অধীনস্ত কর্মচারী আহেদ আলীর মাধ্যমে জানতে পারেন কাউনিয়া উপজেলার শহীদবাগ ইউনিয়নের দয়াল বাজার এলাকায় অসাধু কিছু ব্যক্তি সংঘবদ্ধ হয়ে সরকারি বেড়িবাঁধ ও সরকারি গাছ কেটে দোকান ও ঘরবাড়ি নির্মাণ করছে। বিষয়টি তিনি রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানালে তাকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার জন্য বলেন। বিকেলে সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাঁধ ও সরকারি গাছ কেটে দোকান ও ঘরবাড়ি নির্মাণ কাজে বাধা দেন। এ সময় দখলদার বকুল মিয়া (৪৫), মাহমুদা বেগম ওরফে মিস্টি (২২), বাবুল (৪০), লাভলু মিয়া (৪৬), রজব আলী (৪২), তাজের উদ্দিন (৫০) এবং মজনু মিয়া (২৮) সহ বেশ কয়েকজন ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠিসোটা নিয়ে তাদেরকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।
এ সময় তাদের মোটরসাইকেলটিও ভাংচুর করা হয়। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের মানুষ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যান। এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। আহত উপ-সহকারী প্রকৌশলী চাঁন মিয়া জানান, বাঁধের জায়গা ও সরকারি গাছ কাটতে বাধা দেওয়ায় তাদের উপর হামলা করা হয়েছে। কাউনিয়া থানার ওসি আব্দুল আজিজ বলেন, সোমবার রাতে উপ-সহকারী প্রকৌশলী চাঁদ মিয়া এজাহার দায়ের করেন। তিনি বলেন, হামলাকারীদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।
রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর