× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯, রবিবার

দিনে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা রাতে বিএনপির সঙ্গে বৈঠকে মার্কিনমন্ত্রী

অনলাইন

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১০:৪১

বাংলাদেশ সফরে থাকা মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী (ভারপ্রাপ্ত) এলিস ওয়েলসের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতরাতে ঢাকাস্থ মার্কিন রাষ্টদূত আর্ল রবার্ট মিলারের বাসভবনে বৈঠকটি হয়। এক ঘণ্টারও বেশি সময় স্থায়ী ওই বৈঠকে মহাসচিবের সঙ্গে ছিলেন বিএনপির ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ  চৌধুরী। রাজনীতি, অর্থনীতিসহ সম-সাময়িক পরিস্থিতি এবং দুই দেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়াদি নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও বিএনপির মধ্যকার ওই বৈঠকে আলোচনা হয় বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে।
 
উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক উপদেষ্টা এবং বর্তমানে স্টেট ডিপার্টমেন্টে দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত এলিস ওয়েলস ৫ই নভেম্বর থেকে বাংলাদেশে রয়েছেন। সফরের প্রথম দিনে তিনি স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। পৃথক ওই বৈঠকে রাজনীতি, সুশাসন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, নাগরিক সমাজের কার্যক্রম, রোহিঙ্গা সঙ্কট, নিরাপত্তা সহযোগিতা, বাণিজ্য-বিনিয়োগসহ ঢাকা-ওয়াশিংটন অংশীদারিত্বের নানা দিক নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা করেন তারা।

বুধবার দিনের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বিকালে আইএলও এবং শ্রমখাতের উন্নয়নে কাজ করা বেসরকারী সংস্থা সলিডারিটি অর্গেনাইজেশনের নেতবৃন্দের সঙ্গে মত বিনিময় করেন।

দিনে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা আর রাতে বিরোধী দল বিএনপির সঙ্গে বৈঠক করে সফরটিকে সর্বজনীন রূপ দেয়া মার্কিনমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতে গেছেন কক্সবাজারে।
সেখানে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে বাস্তুচ্যুত লাখ লাখ মিয়ানমার নাগরিক এবং তাদের আশ্রয় দিয়ে সঙ্কটে পড়া স্থানীয় জনগোষ্ঠির অবস্থা সরজমিনে দেখবেন তিনি। মানবিক ওই সঙ্কট মোকাবিলায় বাংলাদেশকে অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সমর্থন-সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। স্টেট ডিপার্টমেন্টের এতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

বিকালে এলিস ঢাকায় ফিরবেন। এরপর বাংলাদেশ সফর নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হবেন। একটি অভিজাত হোটেলে তার বিদায়ী সংবাদ সম্মেলনটি হওয়ার কথা। ৩দিনের সফর শেষে রাতেই তিনি ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর