× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

টানা জয়ে শেষ ষোলোতে বায়ার্ন-পিএসজি

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৫৭

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ‘বি’ গ্রুপ থেকে টানা চার জয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিলো জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ। আর ‘এ’ গ্রুপ থেকে এমন কৃতিত্ব ফরাসি চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেই’র (পিএসজি)। বুধবার রাতে ঘরের মাঠে অলিম্পিয়াকোসকে ২-০ গোলে হারায় টানা সাতবারের বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখ। আর পিএসজির মাঠে খেলতে এসে ১-০ গোলে হার দেখে বেলজিয়ান জায়ান্ট ক্লাব ব্রুগে।
পিএসজি-ক্লাব ব্রুগের ম্যাচে একমাত্র গোল করেন আর্জেন্টাইন তারকা মাউরো ইকার্দি। ম্যাচের ২২তম মিনিটে এই ফরোয়ার্ডের গোলে ১-০ গোলের লিড নেয় পিএসজি। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে নিজের দশম ম্যাচে ৮ গোল করলেন চলতি মৌসুমে ইন্টারে ধারে খেলা ইকার্দি। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে প্রথম ১০ ম্যাচে সর্বোচ্চ ৯ গোল করে করেছেন সাদিও মানে, সিমোনে ইনজাগি ও হ্যারি কেন। ম্যাচের ৫০তম মিনিটে ক্লাব ব্রুগের স্ট্রাইকার ওকেরেকে পিএসজির গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন।
ম্যাচের ৭৪তম মিনিটে পিএসজির অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা প্রতিপক্ষকে পেনাল্টি উপহার দেন। কিন্তু নাভাসের দৃঢ়তায় গোলহীনই থাকতে হয় ক্লাব ব্রুগেকে। এই জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ঘরের মাঠে ১৫ বছর ধরে টানা ২৩ ম্যাচ অপরাজিত পিএসজি। এই লীগে ঘরের মাঠে টানা জয়ের রেকর্ড বার্সেলোনার (৩৪ ম্যাচ)। যারা এখনো অপরাজিত। ৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষে আছে পিএসজি। আর ২ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে আছে ক্লাব ব্রুগে।
মেসির পাশে ‘গোলমেশিন’ লেভানদোস্কি
গত শনিবার ফ্রাঙ্কফুর্টের কাছে ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত বায়ার্ন মিউনিখ অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল নতুন কোচের অধীনে। সোমবার বায়ার্নের প্রধান কোচ নিকো কোভাচকে সরিয়ে দেয় বায়ার্ন কর্তৃপক্ষ। তার স্থলাভিষিক্ত হন কোভাচের সহকারী হানসি ফ্লিক। তবে অন্তর্বর্তীকালীন হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ফ্লিক। শুরু থেকে আক্রমণাত্মক খেলা বায়ার্ন প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষের জালে ১২টি শট নিয়েও গোলের দেখা পায়নি। দলকে প্রথম লিড এনে দেন বায়ার্নের হয়ে দারুণ ফর্মে থাকা রবার্ট লেভানদোভস্কি। ৬৯তম মিনিটে এই পোলিশ স্ট্রাইকার গোল করেন। এই গোলে বায়ার্নের হয়ে বুন্দেসলিগা ও চ্যাম্পিয়ন্স লীগ মিলে চলতি মৌসুমে ১৪ ম্যাচ খেলে সবকটিতেই জালের দেখা পেলেন তিনি। এই দুটি লীগে তার মোট গোলসংখ্যা দাঁড়ালো ২০টি। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২৪ গোল পেলেন লেভানদোস্কি। আর চ্যাম্পিয়ন্স লীগে টানা আট ম্যাচে গোল করে মেসির পাশে স্থান করে নিয়েছেন এই পোলিশ স্ট্রাইকার। সামনে আছেন কেবল রোনালদো (টানা ৯ ম্যাচ)। বায়ার্নের হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন বদলি খেলতে নামা ইভান পেরিসিচ। ৮৯তম মিনিটে গোল করেন এই ক্রোয়েশিয়ান তারকা। চার ম্যাচের সবকটিতে জিতে ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে বায়ার্ন। অলিম্পিয়াকোসের পয়েন্ট মাত্র ১।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর