× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার

অমিতাভের অনুপস্থিতিতে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন করলেন শাহরুখ

বিনোদন

কলকাতা প্রতিনিধি | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১২:১২

আনুষ্ঠানিকভাবে ২৫তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হয়েছে শুক্রবার সন্ধ্যায় নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা আমিতাভ বচ্চনই গত কয়েক বছর ধরে এই উৎসবের উদ্বোধন করে আসছেন। তবে এবার তিনি অসুস্থতার জন্য আসতে পারেন নি। আর তাই প্রদীপ জ্বালিয়ে এবারের রজতজয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধন করেছেন পশ্চিমবঙ্গের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর অভিনেতা শাহরুখ খান। সঙ্গে ছিলেন রাখী গুলজার, মহেশ ভাট, সৌরভ গাঙ্গুলি ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তার ভাষনে মমতা ভাই শাহরুখকে বলেছেন, শাহরুখ নো ছুট্টি, তাহলে কাট্টি। এরপর মমতার মুখে শোনা গিয়েছে শাহরুখের অফুরন্ত প্রশংসা। এদিন উদ্বোধনী মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন টলিউডের বিভিন্ন পরিচালক, অভিনেতা ও অভিনেত্রী।
এছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রের সেলিব্রিটিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হলিউডের প্রখ্যাত পরিচালক ভোলকার স্কনডরফ ও অভিনেত্রী অ্যান্ডি ম্যাকডাওয়েল। তবে উল্লেখযোগ্য অনুপস্থিতি ছিল প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের। গতবারের উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান প্রসেনজিৎকে সরিয়ে পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকে এবার চেয়ারম্যান করায় অখুশি ছিলেন প্রসেনজিৎ।
 শাহরুখ খান তার বক্তব্যে বলেছেন, কলকাতা আমাকে বারবার টেনে আনছে এই চলচ্চিত্র উৎসবে। আর আসতে পেরে আমি নিজেও আনন্দিত। কলকাতা আমার ভালো লাগার শহর। অভিনেত্রী রাখী গুলজার বলেছেন,আমার ধমনিতে বাংলা। বাংলা আমার প্রাণ। ভালোবাসার জায়গা। আমি এই বাংলার মেয়ে। তাই তো বাংলার ডাকে চলে এসেছি। কী যে আনন্দ হচ্ছে, বলে বোঝাতে পারবো না। মহেশ ভাট বলেছেন, গোটা বিশ্বে বিপর্যয় চলছে। আমরা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছি। এখন আমাদের রামকৃষ্ণ দেব, স্বামী বিবেকানন্দের বাণীর পথে এগোতে হবে। সৌরভ বলেছেন, এই শহর ঋত্বিক ঘটক, মৃণাল সেন, সত্যজিৎ রায়ের। তারাই কলকাতাকে চিনিয়েছেন বিশ্বের দরবারে।
উদ্বোধনের আগে তনুশ্রীশঙ্করের নেতৃত্বে পরিবেশিত হয়েছে নৃত্য। এদিন উদ্বোধনী ছবি হিসেবে প্রদর্শিত হয় সত্যজিৎ রায়ের ‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’। এই ছবির ৫০তম বর্ষ এটি। উৎসবে ৭৬টি দেশের ২১৪টি পূর্ণদৈর্ঘ্য ছবি, ১৫২টি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ও তথ্যচিত্র দেখানো হচ্ছে। এরমধ্যে এ বছরে মুক্তি পাওয়া ৪৮টি ছবি দেখানো হচ্ছে। এবার উৎসবের ফোকাস কান্ট্রি জার্মানি। এসেছে জার্মানির ৪২টি ছবি। এবারই প্রথম উৎসবে দেখানো হচ্ছে ২টি থ্রিডি ছবি। দেখানো হচ্ছে ২৩টি বাংলা ছবি।
উৎসবে বাংলাদেশ থেকে এশিয়ান সিলেক্ট বিভাগে নেটপ্যাক পুরস্কারের জন্য বাছাই করা চলচ্চিত্রের মধ্যে মনোনীত হয়েছে এন রাশেদ চৌধুরীর ‘চন্দ্রাবতী কথা’। অন্যদিকে সিনেমা আন্তর্জাতিক বিভাগে দেখানো হবে নাসির উদ্দীন ইউসুফ পরিচালিত ‘আলফা’ ছবিটি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর