× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার
বাবড়ি মসজিদ

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে অসন্তোষ, প্রত্যাখ্যানের আহ্বান মুসলিমদের প্রতি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৬:৪১

বাবড়ি মসজিদ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অল ইন্ডিয়া মজলিশে ইত্তেহাদুল মুসলিমিন-এর (এআইএমআইএম) প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়েসি। একই সঙ্গে বাবড়ি মসজিদ নির্মাণের জন্য অন্য এলাকায় ৫ একর জমি বরাদ্দ দেয়ার জন্য যে নির্দেশ দিয়েছে আদালত তা প্রত্যাখ্যান করার আহ্বান জানিয়েছেন মুসলিমদের প্রতি। তিনি এই রায়কে মুসলিমদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমুলক বলে আখ্যায়িত করেছেন। ওয়েসি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট সর্বোচ্চ, কিন্তু নির্ভুল নয়। একটি রায় নিয়ে আমার কি অসন্তোষ প্রকাশের অধিকার নেই? অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি) বলেছে, তারা রায়ে খুশি নয়। কোনো মসজিদের স্থান নিয়ে আমরা বাণিজ্য করতে পারি না। এটা কোনো ব্যক্তিগত সম্পদ বা বিষয় নয়। এক্ষেত্রে আদালতের রায় নিয়ে এআইপিএমএলবির অবস্থানের সঙ্গে একমত পোষণ করছি।
আশা করছি তারা এ বিষয়ে ভবিষ্যত নির্ধারণ করতে বৈঠকে বসবে। তাদের সিদ্ধান্তের সঙ্গে আমি একমত থাকবো। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ।

বাবড়ি মসজিদ নির্মাণের জন্য আদালত অযোধ্যার অন্যত্র মুসলিমদের জন্য যে ৫ একর জায়গা বরাদ্দ করার কথা বলেছে, তা প্রত্যাখ্যান করতে আহ্বান জানিয়েছেন এআইএমআইএম প্রধান। তার ভাষায়, আমাদের আইনগত অধিকারের পক্ষে লড়াই করে আসছি। আমরা কারো কাছ থেকে দান হিসেবে ৫ একর জমি চাই না। আমরা মুসলিমরা আমাদের স্রষ্টা আল্লাহর প্রার্থনার জন্য ৫ একর জমি কি কেনার সামর্থ্য রাখি না? একটি মসজিদের বিষয়ে কোনোই দর কষাকষি হতে পারে না।

ধর্মীয় স্পর্শকাতর একটি বিষয়ে আদালতের রায় নিয়ে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেছেন, আদালত তার রায়ে কি বলতে চায় যে, ১৯৯২ সালে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে অযোধ্যায় মসজিদ ধ্বংস করা হয় নি? অযোধ্যায় এই বাবড়ি মসজিদ দাঁড়িয়ে ছিল প্রায় ৫০০ বছর। কংগ্রেস এবং আরএসএসের ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে এই মসজিদটি গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
বাবড়ি মসজিদ যেখানে ছ
১০ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৫:৫৯

বাবড়ি মসজিদ যেখানে ছিল সেখানেই থাকবে ইনসাআল্লাহ।

Atik
১০ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ২:১৯

রায়টি অবশ্যই বৈষম্যমূলক যা প্রত্যাখ্যাত।

Selina
৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৯:২০

we reject the decision.

অন্যান্য খবর