× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

বিবর্তনকে প্রভাবিত করছে জলবায়ু পরিবর্তন, মিলেছে প্রমাণ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৮:১৩

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে স্কটল্যান্ডের একটি দ্বীপে লাল হরিণের মধ্যে বিবর্তনের প্রমাণ পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। বন্য প্রাণীর বিবর্তনে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব রয়েছে এমন ধারণা থাকলেও এটিই এর প্রথম প্রমাণ। বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত করেছেন, চার্লস ডারউইনের বিবর্তন তত্ত্ব অনুযায়ী প্রাকৃতিক নির্বাচনের  কারণে হরিণদের মধ্যে এই জিনগত পরিবর্তন হয়েছে। এ খবর দিয়েছে বৃটিশ গণমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

খবরে বলা হয়, স্কটল্যান্ডের হেব্রিডিস দ্বীপপুঞ্জের রাম নামক দ্বীপে এডিনবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক এই লাল হরিণদের মধ্যে জিনগত পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন। জলবায়ু পরিবর্তনের দ্বারা সৃষ্ট উষ্ণায়নের ফলে এই হরিণরা প্রতিবছর নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই বাচ্চা প্রসব করছে। ১৯৭০ এর দশকের তথ্য ব্যবহার করে এই গবেষকরা দেখেন, প্রতি দশকে এই হরিণদের বাচ্চা প্রসবের গড় তারিখ তিন দিন করে এগিয়েছে। বিশ্বব্যাপী তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে হরিণদের জীবনধারায় এই পরিবর্তন এসেছে।


হিন্ডস নামে পরিচিত এই স্ত্রী লাল হরিণরা প্রতিবছর একটি করে বাচ্চা দেয়। তবে গত কয়েক দশকের বিবর্তনের ফলে এরা এখন প্রতিবছর আরো কম সময়ে বাচ্চা দিতে শুরু করেছে। ফলে পুরো জীবদ্দশায় এদের বাচ্চা  দেয়ার সংখ্যা আগের চেয়ে বেড়েছে। গবেষকদলের প্রধান, অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. টিমোথি বনেট বলেন, এটি অল্প কিছু উদাহরণের একটি যেখানে এত কম সময়ে বিবর্তন কার্যক্ষেত্রে প্রতিফলিত হয়েছে। জলবায়ু উষ্ণায়নের সঙ্গে প্রাণিদের খাপ খাওয়াতে এই জিনগত পরিবর্তন সহযোগিতা করছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর