× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

বাবরি মসজিদ ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে এআইএমপিএলবি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১২:৪৩

অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ নিয়ে দেয়া ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর করণীয় নির্ধারণ করতে আজ শনিবার বৈঠকে বসার কথা অল ইন্ডিয়া মুসলিম পারসোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি)-এর। সুপ্রিম কোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে তারা আপিল করবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে এ বৈঠকে। ৯ই নভেম্বর অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ বিরোধ নিয়ে মামলার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তাতে যেখানে বাবরি মসজিদ অবস্থিত তা রামমন্দির নির্মাণের অনুমোদন দেয়া হয়। মসজিদ নির্মাণের জন্য মুসলিমদেরকে অন্য কোথাও ৫ একর জমির একটি প্লট বরাদ্দের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি নির্দেশনা দেয় আদালত।

এ খবর দিয়ে অনলাইন জি নিউজ বলছে, সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত করণীয় কি হবে, আপিল করা হবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন এআইএমপিএলবি’র সদস্যরা। উত্তর প্রদেশের রাজধানী লক্ষ্ণৌতে স্থানীয় সময় আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় এই বৈঠকে বসার কথা এআইএমপিএলবি’র সদস্যদের। বৈঠক হওয়ার কথা দারুল উলুম নাড়ওয়াতুল উলেমা’তে।
এটি এই লক্ষ্ণৌতে অবস্থিত এই রাজ্যের সবচেয়ে পুরনো ইসলামিক প্রতিষ্ঠান।

আজকের এই বৈঠকটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছে জি নিউজ। এআইএমপিএলবি’র সিনিয়র সদস্য মাওলানা খালিদ রশিদ ফারাঙ্গি মাহালি আগেভাগেই বলেছেন, সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিষয়ে আলোচনা হবে বৈঠকে। তবে কমপক্ষে ৫১ একর জমির দাবি নিয়ে আলোচনা করবেন এআইএমপিএলবি’র নির্বাহী সদস্যরা। এতে সভাপতিত্ব করবেন এআইএমপিএলবি’র সভাপতি মাওলানা রাবেই হাসান নাদভি। রায় ঘোষণার দিনে রায় নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন এআইএমপিএলবি’র সদস্য ও অল ইন্ডিয়া বাবরি মসজিদ অ্যাকশন কমিটির আহ্বায়ক জাফরিয়াব জিলানি।

এআইএমপিএলবি বৈঠকে বসার আগে জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দ (জেইউএইচ) বলে দিয়েছে, ৬৭ একর জায়গার বাইরে মসজিদ নির্মাণের জন্য বিকল্প কোনো জমির প্রস্তাব মেনে নেয়া হবে না। উল্লেখ্য, বাবরি মসজিদকে কেন্দ্র করে যেসব মুসলিম সংগঠন আইনি লড়াই করেছে তার মধ্যে জেইউএইচ অন্যতম। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলনকারী সংগঠন উত্তর প্রদেশ সুন্নি সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ড এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছে যে, তারা সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে না। ওদিকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ সাফ বলে দিয়েছে, অযোধ্যার ‘সাংস্কৃতিক বলয়ের’ ভিতরে মসজিদ নির্মাণ করা যাবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর