× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার

স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্বে নির্মল-বাবু

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৯:২১

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে নির্মল রঞ্জন গুহ ও সাধারণ সম্পাদক পদে আফজালুর রহমান বাবু নির্বাচিত হয়েছেন। আগামী তিন বছরের জন্য তারা সংগঠনের দায়িত্ব পালন করবেন। গতকাল রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তাদের নাম ঘোষণা করেন। এছাড়া ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে ইসহাক মিয়া, সাধারণ সম্পাদক পদে আনিসুর রহমান নাঈম নির্বাচিত হয়েছেন। ঢাকা দক্ষিণ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে কামরুল হাসান রিপন, সাধারণ সম্পাদক পদে তারেক সাঈদ নির্বাচিত হয়েছেন। স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন নেতৃত্ব প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, বর্তমান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এজন্য তাদের সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এর আগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।
স্বেচ্ছাসেবক লী?গের নবনির্বাচিত সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করে দায়িত্ব অর্পণ করেছেন। আমি তার আস্থার শতভাগ প্রতিদান দেয়ার চেষ্টা করব। তিনি যেভাবে সংগঠনকে ঢেলে সাজাতে চাইবেন সেভাবেই পরিচালিত হ?বে। নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু বলেন, ভবিষ্যতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ একটি দক্ষ ও শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে উঠবে। এই সংগঠনে ত্যাগী ও দুর্দিনের নেতাদের দায়িত্বে আনা হবে। সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন। ছাত্রলীগের হাত ধরে রাজনীতিতে পথচলা নির্মল রঞ্জন গুহের। ছাত্রজীবনে তিনি নয়াবাড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, সরকারি দেবেন্দ্র কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ঢাকা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়কেরও দায়িত্ব পালন করেছেন। সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি স্কুলজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি গভঃমেন্ট ল্যাবরেটরি স্কুল ছাত্রলীগের সভাপতি ও ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদকও ছিলেন। স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে মোট ১ হাজার ৯৭৫ জন কাউন্সিলর, প্রায় ১৮ হাজার প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন এবং প্রায় ১৫ হাজার অতিথি উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে আয়োজকেরা। এদিকে সম্মেলনে আগের কমিটির সভাপতি মোল্লা আবু কাউছার ও সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। ক্যাসিনোকান্ডে জড়িত একটি ক্লাবের চেয়ারম্যান থাকায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির দায়িত্ব থেকে মোল্লা আবু কাউছারকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় পরে সম্মেলন কার্যক্রম থেকে সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথকেও বিরত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়। ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সর্বশেষ কাউন্সিল হয় ২০১২ সালে। এর সাত বছর পর অনুষ্ঠিত হলো তৃতীয় সম্মেলন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর