× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরা হলো না লাজুকের

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে | ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৮:১৯

 দু’চোখ ভরা স্বপ্ন নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রথম দিনের পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল লাজুক (১১)। পরীক্ষা শেষে সহপাঠিদের সাথে অটোরিকশায় করে ফিরছিল বাড়ি। কিন্তু বাড়িতে আর ফেরা হয়নি মিষ্টি মেয়েটির। বেপরোয়া গতির দানব এক ট্রাক চাপায় অটোরিকশায় থাকা লাজুকের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। এতে অঙ্কুরেই ঝরে গেছে একটি স্বপ্ন। রোববার বেলা সোয়া ১টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার চরমারিয়া এলাকার বাক্কার মার্কেটের সামনে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ট্রাকচালক খাইরুল (৩৫) এবং ট্রাকটিকে আটক করেছে পুলিশ। তবে ট্রাকে থাকা অপর দুইজন পালিয়ে যায়।
নিহত লাজুক আক্তার কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মারিয়া এলাকার ব্যবসায়ী এমরান মিয়ার মেয়ে। সে মারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী হিসেবে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার্থী ছিল। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, লাজুক স্বল্প মারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রথম দিনে ইংরেজি পরীক্ষায় অংশ নেয়। পরীক্ষা শেষে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে সহপাঠীদের সাথে সে বাড়ি ফিরছিল। পথে চরমারিয়া এলাকার বাক্কার মার্কেটের সামনে অটোরিকশাটি থেকে কয়েকজন পরীক্ষার্থী নেমে একটি দোকান থেকে খাদ্যপণ্য কিনতে যান। এ সময় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অটোরিকশাটিকে বেপরোয়া গতির একটি ট্রাক পেছন দিক থেকে চাপা দেয়। এতে অটোরিকশায় থাকা লাজুক গুরুতর আহত হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে সবার বড় লাজুকের এমন মৃত্যুতে পরিবারে শোকের ছায়া নেমে আসে। মা রিয়া আক্তারের কান্না আর আহাজারিতে ভারি হয়ে ওঠে এলাকার পরিবেশ।
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর