× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

ফিরোজ রশিদকে রংপুরে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৮:৫১

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশিদকে রংপুরে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। জাপা মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গার বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য করায় অবিলম্বে ফিরোজ রশীদকে দল থেকে বহিষ্কার করার দাবিও তুলেছে। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। রংপুরের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে নগরীর পায়রা চত্ত্বরে ফিরোজ রশিদের কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এ সময় নেতাকর্মীরা বক্তব্যে বলেন,  জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা নুর হোসেন সম্পর্কে বক্তব্যকে ঘিরে জাতীয় সংসদে দলীয় এমপি ফিরোজ রশিদ শিষ্ঠাচার বহির্ভূত বক্তব্য দিয়ে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা তার বক্তব্যের জন্য ভূল স্বীকার করে ক্ষমাও চেয়েছেন। তিনি যদি কোন ভূল করে থাকেন সে ব্যাপারে দলের ভেতরেই নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করতে পারেন। কিন্তু প্রকাশ্যে নয়।
ফিরোজ রশিদ নিজেকে দাবী করেন তিনি প্রবীণ রাজনীতিবীদ। কিন্তু তার কর্মকান্ডে মনে হয় তিনি রাঙ্গার রাজনীতির কাছে হাঁটু বয়সী। বক্তারা বলেন, ফিরোজ রশীদকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করায় তার কোন অবস্থান ছিল না।  তিনি জাতীয় পার্টির আশ্রয়ে এমপি হয়েছেন। প্রতি বছর নুর হোসেন দিবস পালনের নামে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। অথচ কোনদিন এর প্রতিবাদ দলের কেউ করেনি। সাহসের সাথে প্রতিবাদ করেছে মসিউর রহমান রাঙ্গা। তিনি প্রতিবাদে কিছুটা ভুল করেছেন, এজন্য সংসদে তাকে নিজ দলীয় থেকে হেয় করা দলকে অপমান করার শামিল। সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, রংপুর মহানগর যুবসংহতির আহ্বায়ক শাহীন হোসেন জাকিরসহ অন্যরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর