× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

শেরপুরে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় গৃহশিক্ষক গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি | ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৯:০২

শেরপুরে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ওই ছাত্রীর এক গৃহশিক্ষককে গ্রেফতার করেছে শেরপুর থানার পুলিশ।  গত শুক্রবার ভোররাতে শেরপুর পৌর শহরের উত্তরে পালপাড়া এলাকা থেকে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়। তার নাম মো. মিনহাজুল ইসলাম (৩৪) বাড়ি শেরপুর উপজেলার ৩নং খামারকান্দি ইউনিয়নের বাঙালি নদীর পূর্বপাড় বিলনোথার গ্রাম। শেরপুর থানার এসআই মো. আতোয়ার রহমান জানান, গত ১০ই অক্টোবর সন্ধ্যায় বিলনোথার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে শিক্ষকের  বাড়িতে প্রাইভেট পড়াতে ডেকে নেয়। পড়ানোর ফাঁকে ওই শিক্ষক শারীরিক ভাবে উত্তেজিত হয়ে ছাত্রীটিকে জাপটে ধরে মেয়েটির ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ সহ শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। এসময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে লম্পট শিক্ষকের স্ত্রী-সহ আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে ছাত্রীর মান ইজ্জত রক্ষা করেন। অসহায় ছাত্রী শিক্ষকের বাড়িতে বই-খাতা ফেলে দৌড়ে তার বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি জানায়। পড়ে ওই ছাত্রীর পরিবার ঘটনাটি শেরপুর থানা-পুলিশকে জানায়। শেরপুর থানা পুলিশের পরামর্শে অভিযুক্ত শিক্ষক মিনহাজুলকে আসামি করে থানায় মামলা দেয়া হয়।
এদিকে থানায় মামলা দায়েরের পর থেকে পালিয়ে আত্মগোপনে থাকেন শিক্ষক নামের কলঙ্ক মিনহাজুল। পুলিশ তাকে আটক করতে একাধিকবার তৎপরতা চালায় তার বাড়িতে। এদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোররাত পুলিশ এক বিশেষ অভিযান চালিয়ে আটক করা হয় তাকে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর