× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

ভরা মৌসুমে পিয়াজ আমদানি বন্ধের চিন্তা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৯:১৬

কৃষকের ন্যায্য দাম পাওয়া নিশ্চিত করতে সরকার ভরা মৌসুমে পিয়াজের আমদানি বন্ধ রাখার চিন্তা করছে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। প্রায় ছয়গুণ বেড়ে পিয়াজের দাম ইতিহাসের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়ার পর সংকটময় পরিস্থিতির মধ্যে গতকাল সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান। সোনারগাঁও হোটেলে ফিনল্যান্ডের সঙ্গে ব্যবসায় সমপ্রসারণ নিয়ে এফবিসিসিআইয়ের আয়োজনে এক সেমিনারের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মন্ত্রী। কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমরা এবার প্ল্যান করেছি, পিক অব দ্য সিজনে, আমরা চিন্তা করছি, সিদ্ধান্ত হয় নাই, আমরা পিয়াজ আমদানি তখন বন্ধ রাখব। যাতে করে আমাদের চাষীরা সঠিক মূল্য পায়। ইনশাআল্লাহ এটা আমরা এবার করব। ইতিমধ্যে আমরা এটা নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তিনি বলেন, ২০ থেকে ২৫ দিনের মধ্যে নতুন পিয়াজ বাজারে এসে যাবে।


আমার বিশ্বাস তখন দাম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে। এর মধ্যে ভারতও তাদের নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে পারে। চাহিদার প্রায় ৭০ ভাগ পিয়াজ দেশে উৎপাদন হয় জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, গতবছরও পিয়াজ আমাদের ভালো হয়েছিল। কিন্তু আগাম বৃষ্টি শুরু হওয়াতে কৃষক পিয়াজ ঘরে তুলতে পারেননি। বিদেশ থেকে আমদানি করে আমরা এটা মেটাতে পারতাম। হঠাৎ এভাবে ইন্ডিয়া পিয়াজের উপর রেস্ট্রিকশন দিবে, রপ্তানি বন্ধ করে দেবে এটা আমরা চিন্তাও করি নাই। কৃষি ক্ষেত্রে সরকারের সফলতা তা কেবল পিয়াজের কারণে ম্লান হতে পারে না বলে মন্তব্য করেন তিনি। পিয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে সরকারের ব্যর্থতার প্রশ্নে রাজ্জাক বলেন, বাজার চলে চাহিদা ও যোগানের উপর। মনিটরিং করে বাজার খুব একটা নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। পুলিশ, র‌্যাব দিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রণ করা যায় না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর