× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার

বুলবুল-রোকনকে ছাড়াই ইডেনে ‘টেস্ট ২০০০’

খেলা

ইশতিয়াক পারভেজ, ইন্দোর (ভারত) থেকে | ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ৯:০৫

২২শে নভেম্বর বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেট প্রবেশ করবে নতুন আরেক ইতিহাসে। এতদিনের সাদা টেস্টের গল্পে প্রবেশ করবে গোলাপি আভা। হ্যাঁ, কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স স্টেডিয়ামে প্রথমবার গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট খেলতে নামবে টাইগাররা। সেই ২০০০ সালে দেশের মাটিতে নিজেদের অভিষেক টেস্টে অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের দলের প্রতিপক্ষ ছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বে ভারত। এবার ভারতের মাটিতে বিরাট কোহলিদের বিপক্ষে টাইগারদের গোলাপি বলের ইতিহাসে প্রথম টস কয়েন তুলে নিবেন মুমিনুল হক সৌরভ।  এমন মুহূর্তে দলকে সমর্থন দিতে ইডেনে উপস্থিত থাকবে টাইগারদের ‘টেস্ট টিম ২০০০’ও। কলকাতার দাদা সৌরভ বর্তমানে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট। এককথায় গোলাপি আয়োজনের অন্যতম ব্যক্তি তিনিই। দুর্জয়দেরও আমন্ত্রণ জানাতে ভুল করেননি তিনি।
আজ দুর্জয়রা পা রাখবেন কলকাতায়। তবে সেই দলের সবাই আসতে পারছেন না।  এর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান আমিনুুল ইসলাম বুলবুল ও ওপেনার আল শাহরিয়ার রোকন। জানা গেছে ব্যক্তিগত ব্যস্ততার কারণেই তারা ইডেনের গোলাপি উৎসবে সামিল হতে পারছেন না। তবে দারুণ উচ্ছ্বসিত হাবিবুল বাশার সুমন। মুঠোফোনে তিনি বলেন, ‘দারুণ লাগছে, এই আমন্ত্রণতো ভীষণ সম্মানের। আমরা আসছি, তবে বুলবুল ভাই ও রোকন আসতে পারছে না। তাই খারাপতো একটু লাগছেই।’

আজ থেকে ১৯ বছর আগে নভেম্বর মাসেই নিজেদের প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নেমেছিল বাংলাদেশ দল। ঢাকার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ভারতের অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি ও নাঈমুর রহমানের টসের সেই ছবি এখনো বাংলাদেশের গর্বের স্মৃতি। সেই ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ দল। ওপেনার আল শাহরিয়ার রোকন মাত্র ১২ ও মেহরাব  হোসেন অপি ৪ রান করে আউট হন। কিন্তু হাবিবুল বাশার সুমনকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেছিলেন আমিনুল ইসলাম বুলবুল। সুমন ৭১ রান করে আউট হয়ে গেলেও তখন বুলবুলের ইতিহাসের অপেক্ষা। শেষ পর্যন্ত দেশের হয়ে প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি তুলে নেন বুলবুল। ১৪৫ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেন তিনি। আজ কলকাতায় পা রাখবে নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের দল। ২২ নভেম্বর ম্যাচের দিন উপস্থিত থাকবেন মাঠে। সেখানেই তাদেরকে সংবর্ধনা দেয়া হবে। যেখানে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

বাশার বলেন, ‘দারুণ লাগছে, সৌরভ গাঙ্গুলীকে ধন্যবাদ দিতেই হয়। তিনি এমন আয়োজন করেছেন। আমরা  সেই ২০০০-এর দল আবার একসঙ্গে হবো ভাবতেই ভালো লাগছে।’ দারুণ উচ্ছ্বাস স্পিনার মোহাম্মদ রফিকেরও। রফিক বলেন, ‘ভালো লাগছে, আমরা আবার সেই দল এক হতে পারবো। আমি ধন্যবাদ দিচ্ছি সৌরভকে। তিনি আমাদের মনে রেখেছেন, আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আমরা ব্লেজার বানিয়েছি। সবাই সেই ব্লেজার পরেই উপস্থিত থাকবো ইডেনে।’
মুমিনুল হকের দলের কাছে তাদেরও প্রত্যাশা কম নয়। বাশার বলেন, ‘অবশ্যই চাই দল ভালো করুক। স্মরণীয় করে রাখুক ম্যাচটা। মোহাম্মদ রফিক বলেন, ‘গোলাপি বলে প্রথম টেস্ট খেলতে নামবে দল। আমি আশা করবো দল তাদের সেরাটা দিয়ে খেলবে যেন সারাজীবন মানুষ তাদের মনে রাখে।’ অন্যদিকে এখনো ভিসা হাতে পাননি সেই দলের পেসার হাসিবুল হোসেন শান্ত। তিনি বলেন, ‘ ব্লেজার পেয়ে গেলেও এখনো ভিসা হাতে পাইনি। তবে আসার জন্য মুখিয়ে আছি। ২১ তারিখ আসবো সেই আশাই করি। হ্যাঁ, অবশ্যই সৌরভ গাঙ্গুলীকে ধন্যবাদ জানাই এমন আয়োজনের জন্য। তবে বাংলাদেশ দলকেও ভালো খেলতে হবে। ফল যাই হোক আমরা ভালো লড়াই প্রত্যাশা করি।’ আমিনুল ইসালাম বুলবুল বর্তমানে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়াতে। জানা গেছে তার আসতে না পারার বিষয়টি তিনি ই-মেইল করে জানিয়েছেন। আর আল শাহরিয়ার রোকন থাকেন নিউজিল্যান্ডে, তিনিও আসতে পারছেন না সেখান থেকে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
shuvo
১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১২:৫১

প্রথম টেস্টে রোকন ওপেনার ছিলনা। ওপেনার ছিল বিদ্যুত। ভাল করে জেনে রিপোর্ট করা উচিত।

অন্যান্য খবর