× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
সালমাদের প্রতিপক্ষ আজ শ্রীলঙ্কা

উইকেট নিয়ে চিন্তিত শান্ত-সৌম্যরা

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার, কাঠমান্ডু (নেপাল) থেকে | ৩ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৫৮

কাঠমান্ডুতে পৌঁছানোর পরই রোববার বিকালে মার্চপাস্টে অংশ নেয় সৌম্য-শান্তরা। গতকাল ত্রিভুবন ইউনিভার্সিটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম অনুশীলন সারে বাংলাদেশ পুরুষ ক্রিকেট দল। আগামীকাল মালদ্বীপের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সাউথ এশিয়ান গেমসের মিশন শুরু করবে তারা। আর আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। পোখারা স্টেডিয়ামে সালমা-রোমানাদের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। উইকেট ভালো হবে বলে আশা করছেন বাংলাদেশ নারী দলের অধিনায়ক সালমা খাতুন। শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে উইকেট নিয়ে সালমা বলেন, ‘আজ স্টেডিয়ামে প্র্যাকটিস করলাম। এখানকার উইকেট সর্ম্পকে আমাদের কোনো ধারণা ছিল না।
আজ কিছুটা ধারণা হয়েছে। মনে হচ্ছে মেইন উইকেট ভালোই হবে। আমাদের যে প্রস্তুতি তাতে আমরা এখান থেকে স্বর্ণ জিতেই ফিরতে পারবো।’
তবে মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে উইকেট নিয়ে চিন্তিত বাংলাদেশ পুরুষ দলের ম্যানেজার হাবিবুল বাশার সুমন। গতকাল টিম হোটেলে বসে তিনি বলেন, ‘রাতে এখানে অনেক ঠাণ্ডা। তবে দিনের বেলায় মনে হয় না খেলার সময় কোনো সমস্যা হবে। ঠাণ্ডা কিংবা উচ্চতা নিয়ে নয়, আমাদের বড় দুশ্চিন্তা উইকেট নিয়ে। এরকম ঠাণ্ডায় আমরা অনেক খেলেছি। আসলে উইকেটটা কেমন হয়, এটা নিয়েই আমাদের ভাবনা। যেহেতু এটা টি-টোয়েন্টি খেলা, আর টানা কয়েকটি ম্যাচ খেলতে হবে। ভালো উইকেট পাব কিনা সেটা নিয়েই একটু চিন্তিত আমরা। যখন উইকেট ভালো থাকে না তখন বড়-ছোট দলের মধ্যে পার্থ্যকটা কমে যায়। উইকেট ছাড়া আর কোনো চিন্তা নেই আমাদের।’
মালদ্বীপের বিপক্ষে ম্যাচের পর একদিন বিরতি। এরপর টানা তিনদিন-ভুটান, নেপাল এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ। টানা ম্যাচ খেললে ক্রিকেটারদের ইনজুরিতে পড়ার শঙ্কাও আছে। ফুটবলের সূচি নিয়ে অংশগ্রহণকারী দলগুলো আপত্তি তুলেছে। ক্রিকেটের সূচি নিয়ে কোনো অভিযোগ করছেন না হাবিবুল বাশার। তিনি বলেন, ‘টানা ম্যাচ খেলা নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। কারণ আমাদের বিপিএলে টানা ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে।  হয়তো টানা ম্যাচ খেলাটা ঠিক নয়। একদিন বিরতি থাকলে ভালো হতো। কিন্তু এটা নিয়ে আমরা অভিযোগ করছি না। গেমসে অংশগ্রহণ করতে পারায় আমরা সবাই রোমাঞ্চিত। এসএ গেমসের ক্রিকেটে ২০১০-এ স্বর্ণ জিতেছিল বাংলাদেশ।  এবারের আসরে ভারত-পাকিস্তান নেই বলে পদক ধরে রাখাটা সহজ বলেই মনে করছেন অনেকে। বাশার তা মনে করছেন না। তিনি বলেন, ‘ভারত-পাকিস্তান নেই বলে যে সোনা জেতা সহজ তা ঠিক নয়। আসলে ক্রিকেটে সহজ বলতে কিছু নেই।  শ্রীলঙ্কা ভালো দল নিয়ে আসছে। নেপালে তাদের ঘরের মাঠে খেলবে। কাজেই আমরা কাউকে সহজভাবে নিচ্ছি না। এটা ঠিক ভারত-পাকিস্তান থাকলে খেলাটা আরো আকর্ষণীয় হতো। যখন এসএ গেমসে নিশ্চিত হয়েছে যে বাংলাদেশ দল যাবে, তখন থেকে একটাই চিন্তা কাজ করেছিল যে কে খেলবে বা না খেলবে তা নয়। আমরা স্বর্ণ জিততে চাই। ২০১০ সালে জিতেছি, এবার তার পুনরাবৃত্তি করতে চাই।’ ইমার্জিং এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কাকে হারানোর অভিজ্ঞতা আছে সৌম্যদের। সেটা চিন্তা করলে এসএ গেমসে লঙ্কানরা কোনো বড় বাধা হওয়ার কথা নয়। তবে বাশার বলেন, ‘সেটা ছিল পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচ, এটা বিশ ওভারের। যদি সবকিছু চিন্তা করি, তাহলে আমাদের সমস্যা হওয়ার কথা নয়। টি-টোয়েন্টি খেলা আর ফাইনালের চাপ তো আছেই। আমরা এসেছি কিন্তু প্রত্যাশার চাপ মাথায় নিয়ে। সবকিছু উতরে স্বর্ণ জিতে দেশে ফিরতে চাই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর