× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার
সিলেটে ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ বাঁচলে দেশের গণতন্ত্র বাঁচবে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:২৭

আওয়ামী লীগ বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে বলে মন্তব্য করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দেশের গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধ রক্ষা করতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রাখার কথাও বলেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেটের আলীয়া মাদ্রাসা ময়দানে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগ সৎ ও যোগ্য নেতৃত্বের খোঁজে রয়েছে জানিয়ে বলেন- শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান থেকে কেউ রেহাই পাবে না। এ কারণে আওয়ামী লীগের ভেতরে কোনো দুর্নীতিবাজ, টেন্ডারবাজ ও সন্ত্রাসীদের ঠাঁই নেই। যারা অপরাধ করবে তাদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার সরকার জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত থাকবে বলে হুঁশিয়ারি দেন ওবায়দুল কাদের। বক্তৃতায় তিনি বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য ও ডায়নামিক নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলায় পরিণত হচ্ছে। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, বিদায়ী মহানগর সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদের পরিচালনায় সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় সদস্য ও মহানগর সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আব্দুর রহমান, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য সুজিত রায় নন্দী, অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান প্রমুখ। সমাবেশে ওবায়দুল কাদের বলেন- বর্তমানে আওয়ামী লীগে কর্মীর সংখ্যা কমে গেছে। বেড়েছে নেতার সংখ্যা। এখন পোস্টার-বিলবোর্ড লাগাতে মানুষ ভাড়া করতে হয়। আর এখন বিলবোর্ডে সকলেই নেতা। সামনে মানুষ দেখি এক, আর বিলবোর্ডে মানুষ দেখি আরেক। আমাদের এমন নেতা দরকার নেই। আমাদের দরকার সাচ্চা নেতা, দুঃসময়ের নেতা। আমাদের ত্যাগী নেতা ও যোগ্য নেতা দরকার। সিলেটের নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, দলের দুঃসময়ে যারা ত্যাগ স্বীকার করেছেন, তাদের রেখে কোন পকেট কমিটি হবে না। পকেট কমিটি করা বন্ধ করুন। আওয়ামী লীগ থেকে কখনোই কাউকে বাদ দেয়া হয় না, শুধুমাত্র দায়িত্বের পরিবর্তন হয়। তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগে মনোনয়ন বাণিজ্যের দিন শেষ। এখন আর মনোনয়ন বাণিজ্য করা যাবে না। যারা মনোনয়ন বাণিজ্য করতেন তারা সময় থাকতে সাবধান হয়ে যান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর