× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার

বিদেশিদের নিয়ে বিপাকে সিলেট, কোচ গিবসের হুঙ্কার

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৪১

বিপিএল শুরুর সময় ঘনিয়ে এলেও কোনো বিদেশি ক্রিকেটার যোগ দেয়নি সিলেট থান্ডার্সের শিবিরে। এদিকে কাতারে টি-টেন লীগ চলার কারণে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ড্রাফট থেকে নেয়া ক্রিকেটাররাও থাকতে পারবেন না। এই নিয়ে বিপাকে আছে সিলেট সিক্সার্স। গতকাল সিলেট দলের মেন্টর সরোয়ার ইমরান বলেন, ‘বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে আমি বলবো রাদারফোর্ড, চার্লস এরা সবাই ভালো ক্রিকেটার। তবে কাতারে টি-টেনে লীগের জন্য সময়মতো আসতে পারবে না তারা। এই জায়গাটা আমাদের একটু বেশি ভোগাচ্ছে। এমনকি কটরেলও আসতে পারবে না সময়মতো। এসময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলা আছে (ভারতের বিপক্ষে)।
কটরেলের জায়গায় পাকিস্তানের মোহাম্মদ সামি আসছে। তো আমরা আরও চেষ্টা চালাচ্ছি দলে নতুন ক্রিকেটার নেয়ার। আমাদের দল এবার মধ্যম শ্রেণির। আন্ডারডগ না। এবার ঢাকা ছাড়া বাকি দলগুলো ওইরকম শক্তিশালী হয়নি। তবে টি-টোয়েন্টিতে মাঠে যে ভালো খেলবে সেই জিতবে, চ্যাম্পিয়ন হবে।’
এক ভিডিও বার্তায় গিবস বলেন, ‘হার্শেল গিবস বলছি। সিলেট থান্ডারের প্রধান কোচ হতে পেরে আমি খুব রোমাঞ্চিত। বাংলাদেশের জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত হতে যাওয়া এই আসরের অংশ হতে পেরে আমি গর্বিত। আশা করি, সিলেটের সঙ্গে দারুণ একটা মৌসুম কাটবে। মনে রাখবেন, দলকে সমর্থন জানানোর জন্য আপনারা মাঠে আসবেন। ব্যাটে-বলে বজ্রপাতের জন্য প্রস্তুত হন।’
তাসকিনের আনন্দ
তাসকিন আহমেদ এবার  খেলবেন রংপুর রেঞ্জার্সে। গত বিপিএলে সিলেটের হয়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করলেও ইনজুরির কারণে জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন এক বছরের বেশি সময় ধরে। গতকাল অনুশীলন শেষে তাসকিন বলেন, ‘বিপিএল হলো বাংলাদেশের সেরা টুর্নামেন্ট। আমি এটা খুব উপভোগ করি। এখানে অনেক তারকা খেলোয়াড় থাকে। তাদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার হয়। তার একটা আমেজ তো থাকেই। বিপিএল আসলেই আমার মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে। আর আমার এখন একটাই লক্ষ্য, যেখানেই সুযোগ হোক ভালো খেলা। চেষ্টা করবো সুস্থ্য থাকার, ফিট থাকার। নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করবো ভালো খেলার। ভালো পারফরম্যান্স করে জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাই এটাই আমার লক্ষ্য।’ ২০১৮-১৯ মৌসুমে সিলেট সিক্সার্সের সেরা বোলার ছিলেন তাসকিন। ১২ ম্যাচে নেন ২২ উইকেট। টুর্নামেন্টে সাকিব আল হাসানের ২৩ উইকেটের পর দ্বিতীয় সেরা বোলার ছিলেন। এবার সেটি ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু এমন প্রশ্নের উত্তরে তাসকিন জানান, ‘আশাতো থাকবে আগের থেকে ভালো খেলার। কিন্তু দিনশেষে এটা একটা খেলা। ভালো খারাপ হবেই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর