× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার

স্বর্ণ ছাড়া আরেকটি দিন

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার, কাঠমান্ডু (নেপাল) থেকে | ৬ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৪৩
উশুকা মর্জিনা আক্তার

সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে গতকাল দিনের শুরুটা হয় রৌপ্য জয়ের মধ্য দিয়ে। কাঠমান্ডুর সাদদোবাতো উশু কমপ্লেক্সে রুপা জেতেন বাংলাদেশের মর্জিনা আক্তার। পরে পোখরায় অনুষ্ঠিত ভারোত্তোলনে দুটি ও শুটিংয়ে একটি রৌপ্য পেলেও কোথাও আসেনি স্বর্ণ। সাঁতারে আটটি ইভেন্ট থাকলেও পুলে ঝড় তুলতে পারেননি বাংলাদেশের সাঁতারুরা।

উশুতে মর্জিনার রৌপ্য জয়
নান চুয়ান নান দা অলরাউন্ড ইভেন্টে বাংলাদেশকে রৌপ্য পদক এনে দিয়েছেন মর্জিনা আক্তার। শ্রীলঙ্কার প্রতিপক্ষকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠা মর্জিনা হেরে যান নেপালের প্রতিযোগী নিমা ঘারতি মাগারের (১৮.৯১ পয়েন্ট) কাছে। মর্জিনার পয়েন্ট ১৬.৩০। পুরুষ দাওশু অলরাউন্ড ইভেন্টে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন রাশেদ হোসেন। উশুর তাইজি-তাইজি জিয়ান অলরাউন্ড ইভেন্টে ব্রোঞ্জ  জেতেন দীপ্তি দাস।

ভারোত্তোলনে রৌপ্য রাজকুমার ও মোল্লা সাবিরার
পোখারায় ছেলেদের ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে স্ন্যাচ (৮০) এবং ক্লিন এন্ড জার্ক (১০৪) মিলিয়ে ১৮৪ কেজি তুলে রৌপ্য জেতেন রাজকুমার রায়।
এই ইভেন্টে সোনা জিতেছেন শ্রীলঙ্কার ওয়াইডিআই কুমারা। মেয়েদের ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে বাংলাদেশের ফুলমতি চাকমা স্ন্যাচে ৬৩ কেজি এবং ক্লিন এন্ড জার্কে ৮৫ কেজি মিলিয়ে সর্বমোট ১৪৮ কেজি ওজন তুলে রৌপ্যপদক জেতেন। ভারতের বিন্দিয়া রানী দেবী ১৭১ কেজি তুলে স্বর্ণ পান। ছেলেদের ৬১ কেজি ওজন শ্রেণিতে বাংলাদেশের মোস্তাইন বিল্লাহ ব্রোঞ্জ পান সব মিলিয়ে ২৩৫ কেজি ওজন তুলে। মেয়েদের ৪৯ কেজিতে সবমিলিয়ে ১৩০ কেজি ওজন তুলে ব্রোঞ্জ পান মোল্লা সাবিরা সুলতানা।

সাঁতারে জুনাইনার ব্রোঞ্জ
মেয়েদের ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ২ মিনিট ১২.৮৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন জুনাইনা আহমেদ। এই ইভেন্টে নেপালের গৌরিকা সিং স্বর্ণ ও শিবাঙ্গী শর্মা রুপা জিতেছেন। ছেলেদের ১০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে মাহমুদুন্নবী নাহিদ ৫৫ দশমিক ২৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ পান। ৪ গুনিতক ১০০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলেতে (আসিফ রেজা, আরিফুল ইসলাম, মাহমুদুন্নবী নাহিদ, মাহফিজুর রহমান সাগর) ৩ মিনিট ৩০ দশমিক ৭২ সেকেন্ড সময় নিয়ে বাংলাদেশকে ব্রোঞ্জ এনে দেন। এই ইভেন্টে স্বর্ণ শ্রীলঙ্কার, রৌপ্য ভারতের।

পদক শূন্য অ্যাথলেটিক্স
দশরথ স্টেডিয়ামে গতকাল ৪০০ মিটার স্প্রিন্টের হিটে বাংলাদেশের জহির রায়হান তৃতীয় এবং আবু তালেব অষ্টম হয়ে ফাইনালে উন্নীত হয়েছিলেন। তবে অসুস্থতার কারণে তারা ফাইনালে অংশ নিতে পারেননি। ৪০০ মিটার স্প্রিন্টের নারী বিভাগে বাংলাদেশের দুই স্প্রিন্টার সুমি আক্তার ষষ্ঠ ও সাবিহা আল সোহা অষ্টম হন। ট্রিপল জাম্পে সোহেল রানা পঞ্চম, ১০০ মিটার হার্ডলসে তামান্না আক্তার ষষ্ঠ, ১১০ মিটার হার্ডলসে হাসান মির্জা সপ্তম হন। 

ব্যাডমিন্টনে ‘সবেধন নীলমণি’
ব্যাডমিন্টনের মিক্সড ডাবলসে ব্রোঞ্জ নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো বাংলাদেশকে। কাল শ্রীলঙ্কার কাছে সরাসরি ২-০ সেটে হেরে যায় সালমান-উর্মি জুটি। আগেরদিন কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে স্বাগতিক নেপালের নবীন শ্রেষ্ঠা-নানজাল তামাং জুটিকে ২১-১৩ ও ২১-১৭ পয়েন্টে হারিয়ে ছিলেন তারা। গতকাল হেরে যান ১৩-২১ ও ৯-২১ পয়েন্টে। তবে এমন হারের পরও তৃপ্তি বাংলাদেশ শিবিরে। কারণ, সালমান-উর্মি কখনোই একসঙ্গে খেলেননি। ফিকশ্চারের কারণেই জুটি গড়তে হয়েছিল তাদের। আর দু’জন ট্রেনিংও করেছেন পৃথক দুই কোচের তত্বাবধানে। তাই রসায়নটাও তেমন ছিল না। আসরে একটিমাত্র ব্রোঞ্জ নিয়েই আগামীকাল দেশে ফিরছে  ব্যাডমিন্টন দল।

তায়কোয়ান্দোতে দুটি ব্রোঞ্জ
পুরুষ অনূর্ধ্ব-৮৭ কেজিতে ব্রোঞ্জ জিতেছেন রাসেল খান। নেপালের প্রতিযোগীর কাছে হারেন রাসেল।  অনূর্ধ্ব-৬৭ কেজিতে সালমা খাতুন নেপালের প্রতিপক্ষের কাছে হেরে ব্রোঞ্জ পান।

হ্যান্ডবলে ছেলেদের জয়, মেয়েদের হার
পোখারায় ছেলেদের হ্যান্ডবলে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মালদ্বীপকে ৩৮-২২ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে বাংলাদেশ ১৬-১০ গোলে এগিয়ে ছিল। প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ৪২-৩৩ গোলে হার দেখেছিল তারা। আগামীকাল সকাল ১১টায় বাংলাদেশ মহিলা দল শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে। মেয়েদের হ্যান্ডবলে নেপালের কাছে ২৬-২৪ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে বাংলাদেশ ১৩-১২ গোলে এগিয়ে ছিল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর