× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার

শিরোপাধারী সিটিজেনদের ভাগ্য নির্ধারণী!

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৯:২০

ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে গত দুই মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। গত মৌসুমে লিভারপুলের সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে শিরোপা জেতে দলটি। তবে এবার অলরেডদের চেয়ে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে সিটিজেনরা। ১৫ রাউন্ড শেষে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। ১১ পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে কোচ পেপ গার্দিওলার ম্যান সিটি। আর আজ ঘরের মাঠে মৌসুমের প্রথম ম্যানচেস্টার ডার্বিতে ম্যানইউ’র মুখোমুখি হচ্ছে তারা। বৃৃটিশ মিডিয়া ম্যাচটিকে ‘সিটিজেনদের ভাগ্য নির্ধারণী লড়াই’ বলছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অবস্থা তাদের নগর প্রতিপক্ষেরে চেয়ে বাজে।
২১ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে রেড ডেভিলরা। চতুর্থ স্থানে থাকা চেলসির চেয়ে ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে কোচ ওলে গানার সুলশারের দল।
গত মৌসুমে ৩৮ ম্যাচে ২৩ গোল হজম করেছিল ম্যান সিটি। এবার ১৫ ম্যাচেই ১৭ গোল খেয়ে বসেছে তারা। সব প্রতিযোগিতায় শেষ ৬ ম্যাচে কোনো ক্লিনশিট নেই সিটিজেনদের। সবশেষ তারা ক্লিনশিট রেখেছিল ২৬শে নভেম্বর অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে। ম্যানইউ’র দুশ্চিন্তা অ্যাওয়ে ফর্ম। প্রতিপক্ষের মাঠে শেষ ১১ লীগ ম্যাচে মাত্র একটিতে জয় দেখেছে রেড ডেভিলরা (৬ হার, ৪ ড্র)। আর টানা ১২ অ্যাওয়ে ম্যাচে কোনো ক্লিটশিট রাখতে পারেননি। ১৯৮৬’র পর যা তাদের সবচেয়ে বাজে রেকর্ড। সেবার প্রতিপক্ষের মাঠে টানা ১৫ ম্যাচে গোল হজম করেছিল দলটি।
মর্যাদার লড়াইয়ে ম্যান সিটি স্কোয়াডে ফিরছেন জার্মান মিডফিল্ডার ইলকাই গন্ডোয়ান। এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা থাকায় বার্নলির বিপক্ষে গত ম্যাচ মিস করেন তিনি। দীর্ঘদিন পর মাঠে দেখা যেতে পারে সিটির ইউক্রেনিয়ান ডিফেন্ডার আলেকজান্দার জিনচেঙ্কোকে। হাঁটুর ইনজুরির কারণে ৬ অক্টোবরের পর আর মাঠে নামতে পারেননি তিনি। তবে সিটিজেনরা তিন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সার্জিও আগুয়েরো, লেরয় সানে ও এমেরিক লাপোর্তেকে পাচ্ছে না আজ। অন্যদিকে চোটের কারণে ম্যানইউ’র স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন অ্যান্থনি মার্সিয়াল, পল পগবা, এরিক বেইলি, টিমোথি ফসো-মেনসা, মার্কোস রোহো ও দিয়োগো দালট। তবে দুই মাস পর দলে ফিরতে পারেন নেমানিয়া মাতিচ।
ডার্বির আগে নিজেদের শেষ লীগ ম্যাবে বার্নলিকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দেয় ম্যান সিটি। আর ম্যানইউ ঘরের মাঠে টটেনহ্যাম হটস্পারকে হারায় ২-১ গোলে। শেষ ১০ বছরে ম্যানচেস্টার ডার্বিতে আধিপত্য দেখিয়েছে ম্যান সিটি। ৬৭ শতাংশ ম্যাচ জিতেছে তারা। ডেভিড সিলভা, আগুয়েরো ও গন্ডেয়ানের গোলে ইতিহাদে গত ডার্বিতে ৩-১ গোলে জিতেছিল ম্যান সিটি।
মুখোমুখি পরিসংখ্যান
ম্যাচ: ১৭৮
ম্যান সিটির জয়: ৫৩
ম্যানইউ’র জয়: ৭৩
ড্র: ৫২
শীর্ষ লীগে মুখোমুখি: ১৪৮
ম্যান সিটির জয়: ৪৫
ম্যানইউ’র জয়: ৫৬
ড্র: ৪৭

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর