× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

হতদরিদ্রের চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগ

বাংলারজমিন

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | ৮ ডিসেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৯:০৪

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্রদের জন্য সরকারি বরাদ্দকৃত ১০ টাকা কেজি দরের চাল কার্ডধারীদের না দিয়ে রাতের আঁধারে কালোবাজারে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে চালের ডিলার ও উপজেলার উয়ার্শী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেনের বিরুদ্ধে। স্থানীয়দের অভিযোগ, গত সোমবার ভোর বেলা আওলাদ হোসেন ভাদগ্রাম বাজারে তার মালিকাধীন সজীব ট্রের্ডাস থেকে প্রায় অর্ধশত বস্তা সরকারি চাল পিকআপ যোগে অন্যত্র সরিয়ে নেয়। চাল অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার প্রত্যক্ষদর্শী ভাদগ্রাম বাজারের নৈশপ্রহরী সুলতান মিয়া বিষয়টি পরদিন সন্ধ্যায় বাজার কমিটির সহসম্পাদক কবির হোসেনকে অবহিত করেন। ঘটনা জানাজানি হলে কার্ডধারী উয়ার্শী ইউনিয়নের বন্দ্যে কাওয়ালজানি গ্রামের শহিদুর রহমান, বিভাস মণ্ডল, চন্দনা রাণী, বেলু রাণী, বর্জবাসী মণ্ডল, তুষ্ট মণ্ডলসহ আরো কয়েকজন নভেম্বর মাসের তাদের প্রাপ্য চাল না পাওয়ার অভিযোগ করেন।
ভাদগ্রাম বাজার কমিটির সহসম্পাদক কবির হোসেন বলেন, স্থানীয় চায়ের দোকানদার ও নৈশপ্রহরীর মাধ্যমে তিনি চাল বিক্রি করে দেয়ার ঘটনাটি জানতে পারেন। এ নিয়ে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে বলে জানান তিনি।
অভিযুক্ত চালের ডিলার ও উয়ার্শী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে কয়েক দফা যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মালেক জানান, এমন একটি ঘটনার কথা শুনেছি তবে কেউ আমার কাছে কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ওই চাল ডিলারের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর