× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার

মাথা গোঁজার ঠাঁই চান বৃদ্ধা কমলা

বাংলারজমিন

কুলিয়ারচর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি | ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৮:০৪

ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধা কমলা বর্মণ। স্বামী মারা গেছেন প্রায় ৬-৭ বছর আগে। বসবাস করেন ভাঙা ডেরায়। ঝড়- বৃষ্টির সময় ভাঙা চাল দিয়ে বৃষ্টির পানি পরে ভিজে যায় তার শরীর ও জিনিসপত্র। শীতকালে ভাঙা ঘরের ফাকা দিয়ে প্রচণ্ড বাতাস ও কুয়াশা ঢুকে সারা শরীর ঠাণ্ডা হয়ে যায়। বিধবা বৃদ্ধা কমলা বর্মণের আকুতি- মরার আগে একটা নতুন ঘর তৈরি করে এই ঘরে শান্তিতে ঘুমাইতে চাই। মাথা গোঁজার ঠাঁই চাই। বিধবা কমলা বর্মণের দুই ছেলে সন্তান থাকলেও তারা তেমন কোন খোঁজ খবর নেয় না তার।
অনেক কষ্টে মানুষের সহযোগিতায় কোন রকমে দিন চলে গেলেও ভাঙ্গা একটি ডেরা ঘরে বহু কষ্ট করে রাত-দিন কাটাতে হয় তার। বিধবা কমলা বর্মণের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার সালুয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সালুয়া গ্রামে। তার স্বামীর মৃত অনিল বর্মণ। বেশ কিছুদিন আগে কমলা বর্মণের জন্য একটি ঘর নির্মাণ করে দেয়ার আবেদন জানিয়ে সালুয়া ইউনিয়নের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল কাইয়ুম নামে এক যুবক তার ফেসবুক আইডি থেকে ভাঙ্গা ডেরা ঘরের একটি ছবি সম্বলিত ভিডিও পোস্ট করে। ভিডিওটি দেখে ওই বিধবার ঘর নির্মাণের জন্য কয়েকজন মানবিক মানুষ যৎসামান্য সাহায্য পাঠিয়েছেন। দুঃখিনী কমলা বর্মণের জন্য একটি ঘর নির্মাণ করতে হলে আরো টাকার প্রয়োজন। তাই সরকারের পক্ষ থেকে কিংবা কোন হৃদয় বাণ ব্যক্তিকে তার ঘর নির্মাণে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর জন্য আকুতি জানিয়েছেন কমলা বর্মণ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর