× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ৩০ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার

দিবারাত্রির টেস্টের প্রস্তাব পাকিস্তানের!

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৯:২১

টাইগাররা পাকিস্তান সফরে যাবে কি না তা এখনো নিশ্চিত নয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য আসেনি। যদিও শোনা যাচ্ছে জানুয়ারিতে পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি বিসিবি কিন্তু সেটি শর্তসাপেক্ষে। শুধু টি-টোয়েন্টি সিরিজটাই পাকিস্তানে গিয়ে খেলতে চায় তারা। আর টেস্ট সিরিজ দুবাইয়ে। কিন্তু এমন অনিশ্চিয়তার মাঝেও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) তোড়জোর স্পষ্ট। বাংলাদেশ দলকে পাকিস্তানে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে তারা। গতকাল বেশ কয়েকটি পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা যায় বিসিবিকে দিবারাত্রির পিংক বল টেস্ট খেলার প্রস্তাব দিয়েছে পিসিবি।
তবে বিসিবির পক্ষ থেকে এই বিষয়ে গতকাল পর্যন্ত কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এর আগে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানান, নিরাপত্তা পরিদর্শকরা তাদের রিপোর্ট দিয়েছে। এখন সিদ্ধান্ত সরকারের।
নানা গুঞ্জনে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা শোনা গেলেও সামনে বড় ধরনের জটিলতাই অপেক্ষা করছে বলে জানিয়েছে বিসিবির একটি সূত্র। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিসিবির এক কর্মকর্তা বলেন, ‘পাকিস্তান সফরের সিদ্ধান্ত শুধু বিসিবি নিতে পারবে না। সরকারকে ভূমিকা রাখতে হবে। ক্রিকেটার, দেশি-বিদেশি কোচদেরও মতামত নিতে হবে। সবাই চাইলে সফর হবে। পিংক বল টেস্ট নিয়ে ভাবনা পরে হবে, আগে সফরে যাওয়ার অনিশ্চয়তা কাটুক।’
আগামী বছরের শুরুতেই পাকিস্তান সফরে দুটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে বাংলাদেশের। কিন্তু জানা গেছে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা পাকিস্তানে গিয়ে টেস্ট খেলার পক্ষপাতি নন। বাংলাদেশের বেদেশি কোচিং স্টাফও রাজি হবে কিনা বড় প্রশ্ন। প্রধান কোচ দক্ষিণ আফ্রিকার। তার সঙ্গে পেস বোলিং, ফিল্ডিং কোচ ছাড়াও ফিজিও একই দেশের। এছাড়াও স্পিন বোলিং কোচ ভেট্টোরি নিউজিল্যান্ডে আর কম্পিউটার অ্যানালাইসিস্ট শ্রীনিবাসন ভারতের। বিসিবিকে তাই পাকিস্তান সফরে যাওয়ার আগে সেই সব বোর্ডেরও অনুমতি বা ছাড়পত্র লাগবে। আর শেষ পর্যন্ত রাজি হলেও তারা ফিরতে চান তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেই।
পিসিবিরও বাংলাদেশ দলের সমস্যাগুলো ভালো করে জানা। এরপরও বিসিবির কাছে করাচিতে একটি দিবারাত্রির টেস্ট খেলার প্রস্তাব দিলো তারা। পাকিস্তানের শীর্ষ সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশিত হয় গতকাল। ২০০৯ সালে টেস্ট সিরিজ চলাকালীন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের উপর হামলার পর পাকিস্তানে বন্ধ ছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। পরে ছোট আকারে সীমিত পরিসরের ক্রিকেট ফিরলে এখনো হয়নি টেস্ট। তবে সম্প্রতি পাকিস্তান সফরে টেস্ট খেলতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। আগামী বুধবার লঙ্কানদের বিপক্ষে ঘরের মাঠে প্রায় ১০ বছর পর টেস্ট খেলতে নামবে পাকিস্তান। আর এই সফরের পর পিসিবির চাপ বাড়িয়ে দিয়েছে বিসিবির উপর। বাংলাদেশ দল এখনও পর্যন্ত একটি দিবারাত্রির টেস্ট খেললেও পাকিস্তানের খেলেছে ৪টি। এর আগে মাত্র দুই সপ্তাহের নোটিশে ভারতের বিপক্ষে দিবারাত্রির টেস্ট ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের করা সে বর্ণিল উৎসবে অবশ্য পুরোপুরি বিবর্ণ ছিল বাংলাদেশের পারফরম্যান্স। এছাড়াও রাতে টেস্ট খেলার নিরাপত্তার বিষয়টি আরো বড় হয়ে আসবে বাংলাদেশের সমানে। তাই পাকিস্তান সফরে শেষ পর্যন্ত গেলেও দিন-রাতের টেস্ট রাজি হবে কি না সেটি নিয়ে রয়েছে যথেষ্ট সন্দেহ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর