× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার

শ্রীমঙ্গলে পরিচ্ছন্নতায় ব্যানার ফেস্টুন অপসারণ অভিযান

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৩২

পর্যটন শহর শ্রীমঙ্গলকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সবধরনের ব্যানার-ফেস্টুন অপসারণ অভিযান শুরু করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম। ‘পরিচ্ছন্ন গ্রাম পরিচ্ছন্ন শহর’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি এ অভিযানে নামেন। গত সোমবার শহরের বিভিন্ন গাছে পেরেক ঠুকে সৌন্দর্যহানিকর বিভিন্ন সাইনবোর্ড ও শহরের বিভিন্ন স্থানে ফেস্টুন, ব্যানার ও অপসারণ কাজের উদ্বোধন করেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রনধীর কুমার দেব। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনের সামনে থেকে অপসারণ কাজ শুরু হয়। তৃতীয় দিনের মতো বুধবারও দিনভর শহরে এ অভিযান চলে। অপসারণের কাজে সহযোগিতা করে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা, বিদ্যালয়ের স্কাউট এর সদস্যরা।
এর আগে ইউএনও নজরুল ইসলাম এসব সাইনবোর্ড, ব্যানার অপসারণে সংশ্লিষ্টদের ৮ই ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে শহরে মাইকিং করান। কিন্তু তাতে কেউ সাড়া না পাওয়ায় মাঠে নামেন তিনি। অভিযান শুরুর আগে সোমবার বিকালে তার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি পর্যটন শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সৌন্দর্যহানিকর এসব সাইনবোর্ড বিলবোর্ড অপসারণে সকল মহলের সহযোগিতা কামনা করেন।
তিনি বলেন, জাতির জনকের জন্ম শত বার্ষিকী সামনে রেখে সরকার ‘পরিচ্ছন্ন গ্রাম পরিচ্ছন্ন শহর’ কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। প্রথমে পৌর শহরে এবং পর্যায়ক্রমে গোটা উপজেলা জুড়ে এসব সাইনবোর্ড অপসারণের জন্য অভিযান চালানো হবে। এজন্য রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে, সবাই এতে সমর্থন করেছেন বলে তিনি দাবী করেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম আরো বলেন, গাছেরও তো প্রাণ আছে, অনেক অবিবেচক মানুষকে গাছে পেরেক ঠুকে বিজ্ঞাপনের সাইনবোর্ড লাগাতে দেখা গেছে। এই অভিযানের পর নতুন করে কেউ আইন অমান্য করে সাইনবোর্ড ব্যানার, ফেস্টুন লাগালে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে অর্থদণ্ডসহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি হুঁশিয়ারি দেন। যতক্ষণ পর্যন্ত পুরো উপজেলায় এসব অপসারণ হবে না। আমাদের অভিযান চলবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর