× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার

বড়লেখায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের ওপর হামলা

বাংলারজমিন

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৮:৩৬

বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউপির সায়পুর গ্রামে সরকারি খাস জমিতে বসবাসকারী মৃত মুক্তিযোদ্ধা তমছির আলীর স্ত্রী, ছেলে ও পুত্রবধূকে প্রভাবশালীরা মারধর করে তাদের বসতঘর নিশ্চিহ্ন ও মালামাল লুট করে নিয়েছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী হুসিয়ারা বেগম নাজমা গত বুধবার বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হামলাকারী আব্দুল মান্নান মখনসহ ১৩ জনকে আসামি করে পিটিশন মামলা করেছেন। বিজ্ঞ আদালত তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।
বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের পিটিশন মামলা ও সরেজমিন এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউপির সায়পুর গ্রামে সায়পুর মৌজায় ১নং খতিয়ানের ৮৫৬ নং দাগের ১৩ একর ২৮ শতাংশ সরকারি মোকাম শ্রেণীর খাস ভূমির একাংশে গোরস্থান ও অপরাংশে ৫ জন ভূমিহীন মুক্তিযোদ্ধাসহ ৮৬ পরিবার বিগত ৪০-৫০ বছর ধরে বসবাস করছে। মৃত মুক্তিযোদ্ধা মকবুল আলীর মেয়ে হানিফা আক্তার তাদের দখলিয় প্রায় ৪০ শতাংশ ভূমির একাংশের বসতঘরে প্রায় দেড়মাস পূর্বে বসবাস করতে দেন মৃত মুক্তিযোদ্ধা তমছির আলীর ভূমিহীন স্ত্রী ময়মুন বিবি, ছেলে গিয়াস উদ্দিনসহ তাদের পরিবারকে। গত ৯ই ডিসেম্বর সকালে প্রভাবশালী আব্দুল মান্নান, দুদু মিয়া, আব্দুস সহিদ, নুরুজ আলী গংরা সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মাক্িতযোদ্ধা তমছির আলীর স্ত্রী-সন্তানদের বসতঘর নিশ্চিহ্ন করে ঘরের মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। তাদের সন্ত্রাসী হামলায় আহত হন মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ময়মুন বিবি, ছেলে গিয়াস উদ্দিন, নাতি মাজেদ আহমদ, মুন্না মিয়া ও মাহিন আহমদ। উত্তর শাহবাজপুর ইউপি মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক তাজুল ইসলাম অভিযোগ করেন, এ খাস জমিতে ভূমিহীন ৮৬ পরিবারের সাথে ৮ জন মুক্তিযোদ্ধার পরিবারও বসবাস করেন। আব্দুল মান্নান গংরা মৃত মুক্তিযোদ্ধা তমছির আলীর পরিবারের নিরীহ সদস্যদের ওপর হামলা চালিয়ে বসত ঘর ভেঙে উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নকে কলংকিত করেছে।

উত্তর শাহবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান আহমেদ জুবায়ের লিটন জানান, দীর্ঘদিন ধরে এখানে ভূমিহীন ৮৬টি পরিবার বসবাস করছে। একটি মহল মৃত মুক্তিযোদ্ধা তমছির আলীর স্ত্রী-সন্তানদের বসতঘর অপসারণের চেষ্টা চালায়। সমপ্রতি এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে শাহবাজপুর ফাঁড়ি পুলিশ সেখানে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে স্থিতাবস্থা জারি করে। কিন্তু আব্দুল মান্নান গংরা তা ভায়লেট করে বসতঘর ভেঙে দিয়েছে। শুনেছেন ভুক্তভোগীরা এ ব্যাপারে আদালতে মামলা করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর