× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ২৮ মার্চ ২০২০, শনিবার

সিএএ’র বিরুদ্ধে একজোট হবার আহ্বান ১১ মুখ্যমন্ত্রীকে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৪ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:০৫

নতুন নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) বিরোধী আন্দোলনকে জোরদার করতে বিজেপি নয় এমন রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের একজোট হবার আহ্বান জানানো হয়েছে। আর এই আবেদন জানিয়েছেন কেরালার বামপন্থি সরকারের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। কেরালাই প্রথম গত ৩১ ডিসেম্বর সিএএ বাতিলের প্রস্তাব বিধানসভায় পাস করিয়েছে। এ বার বিরোধীদের একজোট করতে ভারতের ১১টি রাজ্যে, যেখানে মুখ্যমন্ত্রীরা বিজেপির নয়, তাদের কাছে চিঠি লিখে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী বিজয়ন দেশের ধর্মনিরপেক্ষতা এবং গণতন্ত্র রক্ষায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ ১১ জন মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন। এই ১১টি রাজ্য হল পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহার, দিল্লি, ঝাড়খন্ড, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, পাঞ্জাব, পুদুচেরি ও রাজস্থান। এর মধ্যে একমাত্র বিহারে জোট সরকারে রয়েছে বিজেপি। চিঠিতে বিজয়ন লিখেছেন, সিএএ নিয়ে দেশের বড় অংশে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা রক্ষার স্বার্থে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ করার এটাই সময়।
দলমত নির্বিশেষে একজোট হওয়া জরুরি। এদিকে শুক্রবার আসামের শিলচরে সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি অ-বিজেপি রাজ্যগুলিকে কেরালার পথে হাঁটার আবেদন জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, কেরালার মতো আপনারাও সিএএ বাতিলের প্রস্তাব পাস করান। সরকারিভাবে সিদ্ধান্ত নিন। বিজয়নের চিঠি সম্পর্কে তৃণমূল কংগ্রেসের এক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, অধিকাংশ অ-বিজেপি রাজ্য সিএএ-বিরোধী। কেরালার মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে যা লিখেছেন, তার সঙ্গে নীতিগত বিরোধ নেই। তিনি আরও বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় সকলের আগে এনআরসি-বিরোধী প্রস্তাব পাস হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পথে নেমে সিএএ, এনআরসি-বিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। জাতীয় স্তরের সব বিরোধী দলকে নিয়ে বসার ব্যাপারে তিনিই প্রথম উদ্যোগী হয়েছেন। বৈঠকের প্রস্তুতি চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর