× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার

ফ্রান্সের প্যারিসে পকেটমার, চোর এবং ছিনতাইকারী ধরার বিশেষ পুলিশ ইউনিট গঠিত

বিশ্বজমিন

আব্দুল মোমিত (রোমেল), ফ্রান্সে থেকে | ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:১৭

বিশ্বের সবচেয়ে বেশীসংখ্যক পর্যটকের গন্তব্যস্থল প্যারিস। প্রতি বছর এখানে প্রায় ৩ কোটি বিদেশী পর্যটক বেড়াতে আসেন। শহরটির অনেক উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থানসমূহের মধ্যে রয়েছে আইফেল টাওয়ার, নোত্র দাম গির্জা, শঁজেলিজে সড়ক, আর্ক দ্য ত্রিয়োম্ফ, বাজিলিক দ্যু সাক্রে ক্যর, লেজাভালিদ্, পন্তেওঁ, গ্রঁদ আর্শ, পালে গার্নিয়ে, ল্যুভ্র জাদুঘর, ম্যুজে দর্সে, ম্যুজে নাসিওনাল দার মোদের্ন ইত্যাদি।

ফ্রান্সের প্যারিসে পকেটমার, ছিনতাইকারীদের কর্মকান্ড এতই বেশি যে, ফ্রান্স সরকার অবশেষে এই পকেটমার, চোর, ছিনতাইকারীদের কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণ করার জন্য বিশেষ পুলিশ ইউনিট গঠন করতে বাধ্য হয়েছে ! এই পুলিশ ইউনিটের কাজই হবে প্যারিসের মেট্রো, বাস, ট্রাম এবং ট্রেন স্টেশনসহ সকল জনসমাগম ও ট্যুরিস্ট স্থাপনায় অনবরত রাউন্ড দেয়া ! প্যারিসের চুরি, পকেটমারি, ছিনতাইয়ের কারণে ট্যুরিস্টদের কাছে ফ্রান্স সরকার বিব্রত হচ্ছে !  ফ্রান্সের সুনাম নষ্ট হচ্ছে ! ফ্রান্স পুলিশের হিসাব মতে, ২০১৯ সালে শুধু প্যারিসেই ৫০ হাজার পকেটমার ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে ! তার মধ্যে মেট্রো, বাস, ট্রাম, ট্রেন ট্রান্সপোর্টে ঘটেছে ৩১ হাজার পকেটমার ও ছিনতাইয়ের ঘটনা । যা ২০১৮ সাল থেকে ৩০% বেশি !

এই পকেটমার, চুরি, ছিনতাইয়ের ঘটনা কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না ! ফ্রান্স পুলিশ বলছে, ৫০ হাজার পকেটমার বা ছিনতাই শুধু পুলিশ রেকর্ডভুক্ত হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে কত সংখ্যক ঘটনা ঘটেছে তার কোনো হিসাব নাই । প্যারিসের সরকারি প্রসিকিউটর জল্কসু বলেন, ২০১৯ সালে প্যারিসে যেসকল পকেটমার ও ছিনতাইকারীকে সাজা দেয়া হয় তা মোট ১১৩ বছর ! চুরি, পকেটমার, ছিনতাই, মানবপাচার ইত্যাদির অভিযোগে বেশ কয়েকটি রোমানিয়ান অপরাধ চক্রকে আইনের  আওতায় আনা হয়েছে ! বর্তমানে প্যারিসের মেট্রো,বাস, ট্রাম, ট্রেন পাবলিক ট্রান্সপোর্টগুলোতে পকেটমার, চোর, ছিনতাইকারী ধরার যে বিশেষ পুলিশ ইউনিট গঠন করা হয়েছে তারা খুব শীঘ্রই কাজ শুরু করবে! ফ্রান্স সরকার আশা করছে প্যারিসে পকেটমার, চুরি, ছিনতাইয়ের ঘটনা পর্যায়ক্রমে নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ সক্ষম হবে।

দুই হাজার বছরেরও বেশি ঐতিহ্যের অধিকারী এই নগরী বিশ্বের অন্যতম বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। রাজনীতি, শিক্ষা, বিনোদন, গণমাধ্যম, পোষাকশৈলী, বিজ্ঞান ও শিল্পকলা- সব দিক থেকে প্যারিসের গুরুত্ব ও প্রভাব এটিকে অন্যতম বিশ্বনগরীর মর্যাদা দিয়েছে। জাতিসংঘ শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা তথা ইউনেস্কোর সদর দপ্তর এই শহরে অবস্থিত।
ছিনতাই এবং পকেটমারের কারণে টুরিস্টদের কাছে ফ্রান্স সরকার বিব্রত হচ্ছে !  ফ্রান্সের সুনাম নস্ট হচ্ছে !  তাই  পুলিশের এই   বিশেষ  ইউনিট গঠিত হয়েছে ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর