× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

দাবি না মানলে নির্বাচন কমিশন ঘেরাও

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৪ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ৬:২৬

আগামীকাল দুপুর ১২টার মধ্যে নির্বাচন না পেছানোর ঘোষণা দিলে নির্বাচন কমিশন ঘেরাও করবার আল্টিমেটাম দিয়ে আজকের মতো আন্দোলন শেষ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

এর আগে ঢাকা দুই সিটি করপোরেশনের ভোট গ্রহণের তারিখ পিছানোর দাবিতে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তারিখ পরিবর্তনের আবেদন জানিয়ে করা রিটটি আজ খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। ফলে ৩০শে জানুয়ারিই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নির্বাচনের দিন পিছানোর দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদে সড়কে নামেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরতরা বলেন, সম্প্রীতির বাংলাদেশে স্বরস্বতী পূজার দিন নির্বাচন। এটা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

আগামীকাল দুপুর ১২টা পর্যন্ত আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছে জানিয়ে জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বলেন, ২৯ এবং ৩০ তারিখ সরস্বতী পূজা আছে।
এটি জানার পরেও ৩০ তারিখে নির্বাচন কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। আমরা নির্বাচন কমিশনকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সময় বেধে দিয়েছি। এর মধ্যে ভোটের তারিখ না পেছানো হলে আগামীকাল ইসি কার্যালয় ঘেরাও করা হবে।

উল্লেখ্য, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণের তারিখ পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে দায়ের করা রিট খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। বিচারপতি জে.বি.এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার দুপুরে এ আদেশ দেয়। এরফলে ৩০শে জানুয়ারিই ঢাকার দুই সিটিতে ভোটগ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে বলে জানিয়েছেন রিটকারীর আইনজীবী।

সরস্বতী পূজার কারণে ভোট গ্রহণের তারিখ পেছানোর নির্দেশনা চেয়ে করা এ রিটে বলা হয়, ২৯শে জানুয়ারি দিনের দ্বিতীয় ভাগ থেকে ৩০শে জানুয়ারি আধাবেলা সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। দেশের প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ পূজা হয়ে থাকে। ৩০শে জানুয়ারি ভোট হলে পূজা পালন বাধাগ্রস্ত হবে। সংবিধান অনুযায়ী সকল নাগরিকের ধর্মপালনের স্বাধীনতা রয়েছে।

সোমবার এ রিট আবেদনের ওপর শুনানি হয়। রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নূর উস সাদিক ও নির্বাচন কমিশনের পক্ষে তৌহিদুল হক শুনানি করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর