× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার

বৃটেন, ফ্রান্স, জার্মানিকে কঠোর হুঁশিয়ারি ইরানের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৫ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ১০:৫৯

পারমাণবিক চুক্তির অধীনে বিবাদমুলক মেকানিজম বা কৌশল প্রয়োগের সিদ্ধান্তে বৃটেন, ফ্রান্স ও জার্মানির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান। তারা বলেছে, এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হলে তার করুণ পরিণতি ভোগ করতে হবে। ২০১৫ সালে সম্পাদিত ওই চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী ওই তিনটি দেশ মঙ্গলবার ঘোষণা করে যে, তারা বিবাদমুলক কৌশল (ডিসপিউট মেকানিজমস) প্রয়োগ করবে। এর উদ্দেশ্য ইরানকে চুক্তির অধীনে তার প্রতিশ্রুতির প্রতি সম্মান বজায় রাখতে বাধ্য করা। কিন্তু তাদের এমন কৌশলকে কৌশলগত ভুল বলে আখ্যায়িত করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভাদ জারিফ। দেশটির আধা সরকারি বার্তা সংস্থা ফারস তাকে উদ্ধৃত করে বলেছে, বিবাদমুলক কৌশলের ব্যবহার আইনগতভাবে ভিত্তিহীন ও রাজনৈতিক অবস্থান থেকে কৌশলগত ভুল। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা।
 
বিশ্লেষকরা বলছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের এই তিন দেশের এমন ঘোষণার অর্থ হলো ২০১৫ সালে সম্পাদিত পারমাণবিক চুক্তির ইতি।
এর ফলে ইরানের ওপর আরো অবরোধ আসতে পারে। এমনিতেই মার্কিন অবরোধে ইরানের অর্থনীতি পঙ্গু হয়ে আছে। তার ওপর যদি ইউরোপীয় ইউনিয়নের এই তিন দেশ অবরোধ দেয় তাহলে দেশটির টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়তে পারে। এমন অবস্থায় ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, অবশ্যই যদি ইউরোপীয়ানরা চুক্তি প্রক্রিয়ার অপব্যবহার করে তাহলে তাদেরকে পরিণতি মেনে নিতে প্রস্তুত থাকতে হবে। তেহরান মনে করে, ইউরোপীয়ানরা এই ঐতিহাসিক চুক্তির সব পক্ষের সঙ্গে কাজ করার জন্য যে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছিল, তাদের সেই ঘোষণায় সামান্যই আস্থা আছে তেহরানের। বিবৃতিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, পক্ষান্তরে আরো একবার সবার সামনে এটাই প্রকাশ হলো যে, ইউরোপীয়ান তিনটি রাষ্ট্র অবাধ্যতা, অসৎ উদ্দেশ্য এবং অগঠনতান্ত্রিক কর্মকা-ের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে সাড়া দেবে। এরই মধ্যে ২০১৮ সালের মে মাসে বহুজাতিক এই চুক্তি থেকে একতরফাভাবে নিজেদের প্রত্যাহার করে নেয় যুক্তরাষ্ট্র। এর পরই ইরানের বিরুদ্ধে অবরোধ দিয়ে যাচ্ছে দেশটি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর