× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার

ভারতের কারাগারে বরগুনার ৫ জেলে

বাংলারজমিন

বরগুনা প্রতিনিধি | ১৮ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৮:০৩

বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে বাংলাদেশি জলসীমা অতিক্রম করে ভারতীয় জলসীমায় ঢুকে পড়ার অপরাধে বরগুনার ৫ জন এবং পিরোজপুরের ১ জন জেলে বর্তমানে ভারতীয় কারগারে রয়েছেন। ঘটনার ১২ দিন অতিবাহিত হলেও দেশে ফিরে আসতে পারেনি জেলেরা। আটক জেলেরা কলকাতার বাড়াইপুর কারাগারে রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ট্রলার মালিক তৌহিদুল ইসলাম। জানা যায়, গত ৫ই জানুয়ারি বিকালে গভীর সমুদ্রে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার দারুলহুদা গ্রামের তৌহিদুল ইসলামের মালিকানা এফবি মারিয়া ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। বিকল হওয়ার পর ভাসতে ভাসতে বাংলাদেশি জলসীমা অতিক্রম করে ভারতীয় জলসীমায় ঢুকে পড়লে ওই দেশের বনবিভাগ তাদের আটক করে কলকাতার বাড়াইপুর থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। পরে অজ্ঞাতপরিচয় ভারতীয় এক ব্যক্তি মোবাইলে বিষয়টি জানালে ওই ছয় জেলের নাম উল্লেখ করে পাথরঘাটা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন ট্রলার মালিক তৌহিদুল ইসলাম। কলকাতার বাড়াইপুর কারাগারে আটক জেলেরা হলেন- বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী গ্রামের মৃত আমির হোসেন জোমাদ্দারের ছেলে বেল্লাল মাঝি, একই উপজেলার তালুক চরদুয়ানী গ্রামের আবদুর রব জোমাদ্দারের ছেলে এমাদুল হক, একই উপজেলার দক্ষিণ জ্ঞানপাড়া গ্রামের সুলতান চৌকিদারের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন, মৃত হাফেজ জোমাদ্দারের ছেলে শাহিন, আতাহার আলীর ছেলে আবদুল হক এবং পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার চরখালী এলাকার বাহাদুর চাপরাশির ছেলে ইমরান চাপরাশি।
এ বিষয়ে বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, ট্রলার মালিক তৌহিদুল ইসলামের পক্ষ থেকে বিষয়টি আমাদের জানিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর